চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৮ জুলাই, ২০১৯ | ১:৩০ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

স্বাগতিকদের পেয়ে খুশী কোচ জেমি ডে

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশের গ্রুপে ভারত ও কাতার

২০২২ সালের বিশ্বকাপ ফুটবলের বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশের গ্রুপে পড়েছে আফগানিস্তান, ভারত, ওমান ও বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতার। বাছাইয়ের প্রথম রাউন্ড পেরুনো ছয়টি এবং র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা আরও ৩৪টিসহ মোট ৪০ দল নিয়ে গতকাল বুধবার মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে কাতার বিশ্বকাপ ও ২০২৩ সালের এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের ড্র অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের ‘ই’ গ্রুপের পাঁচ দলের মধ্যে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে সবচেয়ে এগিয়ে কাতার। ৫৫তম অবস্থানে আছে এশিয়ান কাপের চ্যাম্পিয়নরা। বাকিরাও র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে বাংলাদেশের (১৮৩তম) চেয়ে। ওমান ৮৬তম, ভারত ১০১তম এবং আফগানিস্তান ১৪৯তম স্থানে আছে। গ্রুপের প্রতিটি দল হোম এন্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে পরষ্পরের বিপক্ষে খেলবে। ম্যাচগুলো হবে আগামী ৫ সেপ্টেম্বর থেকে ২০২০ সালের ৯ জুন পর্যন্ত। আট গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও সেরা চার রানার্সআপ-মোট ১২ দল পাবে বিশ্বকাপের এশিয়া অঞ্চলের বাছাইয়ের তৃতীয় রাউন্ডের টিকেট। এই ১২ দল সরাসরি এশিয়ান কাপে খেলার যোগ্যতাও অর্জন করবে। পরের সেরা ২৪ দল নিয়ে আলাদা আরেকটি বাছাই পর্ব হবে, সেখান থেকে নির্ধারিত হবে চীনে ২০২৩ সালের এশিয়ান কাপের বাকি দলগুলো। ২০২২ সালের ২১ নভেম্বরে শুরু হবে কাতার বিশ্বকাপ। ফাইনাল হওয়ার কথা ১৮ ডিসেম্বরে। ড্র অনুষ্ঠানে ৪০টি দেশকে ৮টি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিটি গ্রুপে পাঁচটি করে দল রয়েছে। এদিকে দ্বিতীয় পর্বের ড্রয়ে বাংলাদেশের গ্রুপেই যে পড়েছে এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন ও পরের বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতার। এমন একটি দেশ গ্রুপে পড়ায় বেশ খুশি বাংলাদেশ ফুটবলের ইংলিশ কোচ জেমি ডে। বাংলাদেশকে এশিয়ান গেমস ফুটবলের এবং বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় পর্বে তোলা এই কোচ এখন ছুটিতে। ড্রয়ের পরপরই প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশ কোচ বলেছেন, ‘আমি খুবই খুশি। কারণ, ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ আমাদের গ্রুপে পড়েছে। দারুণ একটা অভিজ্ঞতা হবে আমাদের বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচগুলোতে। কাতারের পাশাপাশি ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচটিও হবে আমার জন্য দারুণ এক অভিজ্ঞতা।’ রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাইয়ে অস্ট্রেলিয়া, জর্ডান ও কিরগিজস্তানের মতো দল পড়েছিল বাংলাদেশের গ্রুপে। সে তুলনায় এবারের প্রতিপক্ষ কাতার, ভারত, ওমান ও আফগানিস্তান অনেকটাই সহনীয়। সবচেয়ে বড় কথা এ দলগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের ফুটবলের পরিচয়টা বেশি। খেলাও হয়েছে অনেক। পরিচিত দলগুলোই এবার প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। কোচ জেমি ডে বলেছেন, ‘গ্রুপপর্বে যাদের আমরা মোকাবিলা করতে যাচ্ছি তারা সবাই কঠিন প্রতিপক্ষ। এই চার দলকে টপকে পরের রাউন্ডে ওঠার আশা আমরা করছি না।

The Post Viewed By: 120 People

সম্পর্কিত পোস্ট