চট্টগ্রাম সোমবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৫ আগস্ট, ২০১৯ | ১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

পূর্বকোণ প্রতিনিধি , রাঙামাটি অফিস

২ জেএসএস নেতাকে গুলি করে হত্যা বাঘাইছড়িতে

রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে ঘরে ঢুকে গুলি করে জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সংস্কারবাদী গ্রুপের দুই নেতাকে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। নিহতরা হলেন দলটির যুব সমিতির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শতসিদ্ধী চাকমা (৩৮) ও বাঘাইছড়ি উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এনো চাকমা (৩৫)। গত রবিবার দিবাগত রাতে উপজেলার বাবুপাড়া নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এই হত্যাকা-ের বিরুদ্ধে গত সোমবার বাঘাইছড়িতে জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের নেতা কর্মিরা প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে। সোমবার দুপুরে এই প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি বাবু পাড়া থেকে শুরু হয়ে চৌমুহনী সদরে এসে শেষ হয়, এসময় জেএসএস এমএন লারমা দলের নেতারা এই হত্যাকা-ের জন্য সন্তু লারমা নেতৃত্বাধীন জেএসএসকে দায়ী করেন এবং দোষীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান। এদিকে, এ ঘটনায় এলাকার জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। বিরাজ করছে থমথমে অবস্থা। ঘটনার পর এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দলীয় সাংগঠনিক কাজে গিয়ে স্থানীয় বাসিন্দা জনৈক রিপন চাকমার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন, জেএসএস (এমএন লারমা) সংস্কারবাদী গ্রুপের ওই দু’নেতা। ওই সময় ৪-৫ জনের একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী অতর্কিত ঘরে ঢুকে তাদের ওপর গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলেই ওই দুইজন মারা যান। পরে তাদের মৃত্যু নিশ্চিত হয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল গিয়ে লাশ দুটি

উদ্ধার করেছে পুলিশ। হত্যাকা-ে কারা জড়িত, তাৎক্ষণিক তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ঘটনার জন্য প্রতিপক্ষ সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন মূল জেএসএসকে দায়ী করেছেন, সংস্কারবাদী গ্রুপের স্থানীয় নেতা জসী চাকমা। তিনি বলেন, রাতে খাবার শেষে বিশ্রামকালে ঘরে ঢুকে ব্রাশফায়ারে আমাদের ওই দুই নেতাকে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এদিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বর্তমানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছে বলে জানা গেছে।
বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমএ মঞ্জুরুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুই জনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সোমবার সকালে খাগড়াছড়ি জেনারেল হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়।
এদিকে, সোমবার অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেএসএস এমএন লারমা দলের বাঘাইছড়ি সভাপতি সুরেশ চাকমা, সাধারণ সম্পাদক জ্ঞানোজিৎ চাকমা, সাংগঠনিক সম্পাদক জসি চাকমা, থানা কমিটির সদস্য রুবেল চাকমা, ও পিসিপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জগদিশ চাকমা এসময় জেএসএস এমএন লারমা দলের শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
সমাবেশে বক্তারা বলেন এই হত্যাকা-ের সাথে সন্তু লারমা সমর্থিত জেএসএস সরাসরি জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনা না হলে বাঘাইছড়ি উপজেলায় যে কোন অনাকাংখিত ঘটনার জন্য প্রশাসন দায়ি থাকবে।
এই ঘটনায় এখনো পুলিশও কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারিনি বলে নিশ্চিত করেছেন বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমএ মনজুরুল আলম। জোড়া হত্যাকা-ের পর থেকে এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে উপজেলায় বিজিবি ও পুলিশের যৌথ টহল অব্যাহত রয়েছে। বিভিন্ন স্থানে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী চেক পোষ্ট বসিয়ে তল্লাসি করছে।

The Post Viewed By: 68 People

সম্পর্কিত পোস্ট