চট্টগ্রাম সোমবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৫ আগস্ট, ২০১৯ | ১:৫৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

কমে আসছে ডেঙ্গু রোগী

তিনদিনে চট্টগ্রামে আক্রান্ত ৭৫ জন, ২৪ ঘন্টায় ৩৩

চট্টগ্রামে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা আগের তুলনায় কিছুটা কমেছে। পাশাপাশি সুস্থ হয়ে বাড়িও ফিরেছেন অনেক। সামনে আরও বেশ কয়েকজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরতে পারবেন বলে আশাবাদ চিকিৎসকদের। স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট অফিসের তথ্য অনুসারে, গত তিনদিনে চট্টগ্রামে মোট ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৭৫ জন। তবে ঈদের আগের দিন ও ঈদের দিন অনেক রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেও গতকাল বুধবার আবার তা সমানের কোটায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে। চিকিৎসকরা বলছে, বৃষ্টি বন্ধ হলে এ সংখ্যা আরও কমে আসবে। তবে অনবরত বৃষ্টি হওয়ায় রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে বলে আশঙ্কা তাদের। যদিও সবসময়ের মতো সতর্ক থাকার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।
এদিকে এসবের মধ্যেই গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে চট্টগ্রামে আরও ৩৩ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালেই ২৭ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি রয়েছে। এছাড়া বেসরকারি ম্যাক্স হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে ৩ জন, মেডিকেল সেন্টারে ২ জন, হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১জন রোগী। শুধু চট্টগ্রাম জেলা বা নগরীতেই নয়, আগের চেয়ে অনেকাংশেই ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে পুরো বিভাগে। স্বাস্থ্য দপ্তরের বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিভাগের ১০ জেলাতে ১৬৫জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে যা গত তিনদিনের চেয়ে অনেক কম।
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের তথ্য অনুসারে, ঈদের দিন থেকে গতকাল পর্যন্ত সরকারি এ হাসাপাতালে মোট ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছিল ৬১জন রোগী। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭০জন। নতুন ও পুরাতন সব রোগী মিলিয়ে এখন পর্যন্ত এখানে ১০৭ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে। যারা হাসপাতালের ১৩ ও ৮ এবং ৯নং ওয়ার্ডের ডেঙ্গু কর্নারে চিকিৎসা নিচ্ছে। তবে আগামী দু’একদিনের মধ্যে এ সংখ্যা আরও কমে আসবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
এদিকে, চট্টগ্রামের উপজেলাগুলোতে নগরীর চেয়ে এখনো অনেকাংশে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কম বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দীকি। তিনি পূর্বকোণকে বলেন, ‘হিসেব করলে এখনো উপজেলাগুলোতে সেভাবে ডেঙ্গু আক্রান্ত করতে পারেনি। আমাদের চিকিৎসকরা সবমসয় প্রস্তুত আছে। উপজেলা হাসপাতালে তেমন রোগী নেই। আক্রান্তদের হচ্ছে তাদের দ্রুত চিকিৎসা নিশ্চিতে আমাদের টিম কাজ করে যাচ্ছে। আশা করা যায়, সবার সহযোগিতায় সামনে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে’।
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আখতারুল ইসলাম পূর্বকোণকে বলেন, ‘চমেক হাসপাতালে ঈদের দিন পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগী ছিল মাত্র ৮১ জন। কিন্তু গত দ’ুদিনের বৃষ্টিতে সংখ্যা বেড়েছে। বৃষ্টি যদি না হয়, তাহলে আরও কমে আসবে। এখন আমাদের হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে ১০৭ জন। তাছাড়া আরও অনেকেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় রয়েছে। আশা করে তারাও বাড়ি ফিরতে পারবেন’।
এদিকে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগের প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে, গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ডেঙ্গু আক্রান্ত ১৬৫ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছে চাদপুর জেলাতে। এ জেলায় এক দিনেই ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ৩৫জন রোগী। আর সবচেয়ে কম ছিল খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান জেলাতে। এ দুই জেলায় একজন করে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়।

The Post Viewed By: 61 People

সম্পর্কিত পোস্ট