চট্টগ্রাম রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৭ জুলাই, ২০১৯ | ১:০৭ পূর্বাহ্ণ

অনুপম কুমার অভি, বাঁশখালী

কাদায় একাকার বাঁশখালীর লোহাগাড়া সড়ক

বাঁশখালী পৌরসভার আদালত ভবন হয়ে রুহল্লা পাড়া- লোহাগাড়া সড়কটি সামান্য বৃষ্টিতে কাদায় একাকার হয়ে থাকায় পায়ে হেঁটে পথ চলাও দুষ্কর হয়ে পড়ে স্থানীয়দের।
জানা যায়, এলজিইডি থেকে ২০০৫ সালে কার্পেটিং করা হয় সড়কটির। এরপর ১৪ বছর ধরে সংস্কার না করায় কার্পেটিংয়ের পাথর, ইট, কংকর উঠে গিয়ে বর্তমানে জরাজীর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন চলাচল করতে হয় স্কুল কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও নানা পেশাজীবী মানুষের। কিন্তু সড়কটি দিয়ে জনচলাচলে ভোগান্তি হলেও বরাদ্দ না থাকার অজুহাতে মেরামতের কোন ব্যবস্থা নেয়নি পৌরসভা ও প্রকৌশল অধিদপ্তর এলজিইডি। সম্প্রতি সড়কটি সংস্কারের জন্য এলজিইডিতে চাহিদাপত্র পাঠিয়েছেন বাঁশখালীর সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী। তবে কবে নাগাদ সড়কটির সংস্কারকাজ শুরু করা যাবে তা অনিশ্চিত।
জানা যায়, বাঁশখালী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের আশ্রয়ণ প্রকল্প, কাজী পাড়া, দাড়িয়া পাড়া, দিঘীর পাড়া, ব্রাহ্মণ পাড়া, কুলাল পাড়া, রুহুল্লা পাড়া, দত্ত পাড়া, নতুন দিঘীর পাড়া, পাহাড়ি এলাকায় যাতায়াতের জন্য একমাত্র এই সড়কটি ব্যবহার করেন সাধারণ মানুষ। পৌরসভার ৪টি ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের আসা-যাওয়া ছাড়াও দূরপ্রান্ত থেকে আসা মানুষজন এ সড়ক ব্যবহার করে।
রুহুল্লা পাড়ার বাসিন্দা জামাল আহমদ বলেন, এক সময় জনবসতি এ এলাকায় কম ছিল। যানবাহন চলাচলও তেমন ছিল না। বর্তমানে বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন এসে বসতবাড়ি তৈরি করছে। জনসংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি যানবাহন চলাচলও বৃদ্ধি পেয়েছে। এ সড়কটি দ্রুত মেরামত করা প্রয়োজন বলে জানান তিনি।
চাকরিজীবী গিয়াস উদ্দীন ও আবুল কালাম জানান, উপজেলার প্রধান সড়ক হতে পূর্বদিকে পাহাড়ি এলাকা পর্যন্ত কার্পেটিংয়ের পাথর, ইট, কংকর উঠে যাওয়ায় কাদামাটিতে দৈনিক হাজার হাজার মানুষের চলাচল করছে। পৌরসভা থেকে জমির মার্কেটের পাশে ডরমেটরির (সরকারি কোয়ার্টার) সামনে পৌরসভা সড়কের ওপর অস্থায়ী কাঁচা বাজার ও মাছবাজার বসানোর কারণে মানুষের যাতায়াতও বেড়েছে। কিন্তু কাদার মধ্যেই চলাচল করতে বাধ্য হচ্ছে হাজার হাজার মানুষ। সড়ক থেকে অস্থায়ী বাজারটি উচ্ছেদ হলেই সড়কে কাদার পরিমাণ কমে আসবে বলে মনে করেন অনেকেই। সড়কটি মেরামত করার পাশাপাশি কাঁচা বাজারের ব্যবসায়ীদের দখলে থাকা অংশ দখলমুক্ত করার দাবি সাধারণ মানুষের।
পৌর কাউন্সিলর দিলীপ চক্রবর্ত্তী সড়কটির বেহাল দশার কথা স্বীকার করে বলেন, আদালতের পাশ দিয়ে লোহাগাড়া সড়কটি প্রাথমিকভাবে আদর্শ গ্রাম পর্যন্ত মেরামত প্রয়োজন। সড়কটি সংস্কারের জন্য প্রস্তাব পৌরসভা ও এলজিইডিতে প্রেরণ করা হয়েছে। এমপি মহোদয় টেন্ডার আহ্বানের জন্য ডিও লেটার দিয়েছেন।

The Post Viewed By: 86 People

সম্পর্কিত পোস্ট

Optimized with PageSpeed Ninja