চট্টগ্রাম রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৬ জুলাই, ২০১৯ | ২:০৭ পূর্বাহ্ণ

বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের আষাঢ়ী পূর্ণিমা আজ

আজ (১৬ জুলাই মঙ্গলবার) বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মহান আষাঢ়ী পূর্ণিমা। এ পুণ্যময় তিথিতে রাজকুমার সিদ্ধার্থ গৌতম রানী মহামায়ার গর্ভে প্রতিসন্ধি গ্রহণ করেন। এ তিথিতে রূপবতী স্ত্রী যশোধরা, ¯েœহের পুত্র রাহুলও রাজসিংহাসনের ক্ষণিকের মায়া-মোহকে তুচ্ছ করে গৃহত্যাগ করেন। ঘোড়ায় করে সারথী ছন্দককে নিয়ে ছুটে চলেন। একসময় শাক্য ও কোলিয় রাজ্য অতিক্রম করে পৌঁছেন মল্লরাজ্যের অনোমা নদীরে তীরে। অতঃপর স্বীয় মাথার কেশছেদন করে শূন্যে উড়িয়ে দেন এবং সমস্ত রাজ আবরণ পরিত্যাগ করে প্রব্রজিতের পোষাক পরিধান করে সণœ্যাস ধর্ম গ্রহণ করেন। রাজকুমারের এ গৃহত্যাগকে বলা হয় মহাভিনিস্ক্রমণ।
এরপর নেপালের নৈরঞ্জনা নদীর তীরে মহাবোধি বৃক্ষমূলে ধ্যানমগ্ন হলেন। এভাবে দীর্ঘ ছয় বৎসর আত্মনিগ্রহের ফলে তিনি যে জ্ঞান লাভ করলেন তার নাম বোধিজ্ঞান। তখন থেকেই তিনি বুদ্ধ নামে পরিচিত। আষাঢ়ী পূর্ণিমার দিনেই তথাগত বুদ্ধ তাঁর নবলব্ধ জ্ঞানকে সর্বপ্রথম সারনাথের ইসিপতন মৃগদাবে পঞ্চবর্গীয় শিষ্যদের নিকট প্রচার করেন। অর্থাৎ তিনি বুদ্ধাসনে উপবেশনপূর্বক আঠার কোটি ব্রহ্মা পরিবেষ্টিত পঞ্চবর্গীয় শিষ্যদের সম্বোধন করে ‘ধর্মচক্র প্রবর্তন সূত্র’ দেশনা করেন। এজন্য এতিথি ধর্মচক্র প্রবর্তন তিথি নামেও অভিহিত। এ পূর্ণিমা তিথিতে বুদ্ধ শ্রাবস্তীর গন্ড আম্র বৃক্ষমূলে যমক ঋদ্ধি প্রদর্শন করেন এবং এ তিথিতেই বুদ্ধ মাতা রানী মহামায়াকে ধর্মদেশনা প্রদানের উদ্দেশ্যে তাবতিংস স্বর্গে গমন করেন।
বুদ্ধজীবনের এসব মহান স্মৃতি বিজড়িত আষাঢ়ী পূর্ণিমা তিথি সকল বৌদ্ধদের কাছে এক বরণীয় এবং আত্মবোধনের দিন হিসেবে পরিগণিত। এদিন থেকে ভিক্ষুসংঘের ত্রৈমাসিক বর্ষাব্রত শুরু হয় এবং আশ্বিনী পূর্ণিমায় সমাপ্ত হয়।
এ আষাঢ়ী পূর্ণিমা উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন বৌদ্ধ বিহারে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা ও ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশে উদযাপিত হবে। এ উপলক্ষে নগরীর নন্দনকাননস্থ চট্টগ্রাম বৌদ্ধ বিহার, কাতালগঞ্জস্থ নবপ-িত বিহার, দেবপাহাড় পূর্ণাচার আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহার, চান্দগাঁও সার্বজনীন বৌদ্ধ বিহার, মোমিন রোডস্থ চট্টগ্রাম সার্বজনীন বৌদ্ধ বিহার, মোগলটুলী শাক্যমুনি শ্মশান বিহার, পটিয়া কেন্দ্রিয় বৌদ্ধ বিহার ও কল্যাণ প্রকল্প, ঊনাইনপূরা লংকারাম, নাইখাইন সন্তোষালয়, কর্তালা-বেলখাইন সদ্ধর্মালংকার বিহার, পিঙ্গলা সার্বজনীন বিহার, পাঁচরিয়া গন্ধকুটি বিহারসহ নানা বৌদ্ধ বিহারে কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বুদ্ধপূজা, শীল গ্রহণ, প্রদীপ পূজা, দিবসের তাৎপর্যের ওপর ধর্মালোচনা, মেডিটেশন ইত্যাদি।
আষাঢ়ী পূর্ণিমা উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রে আজ রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর শ্যামল চৌধুরীর গ্রন্থনা ও উপস্থাপনায় বৌদ্ধদের শুভ আষাঢ়ী পূর্ণিমা উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠান ‘ত্রিশরণ পরশে’ প্রচারিত হবে। অমিতাভ কালচারাল সোসাইটি’র পরিবেশনায় অনুষ্ঠানের আলোচনা পর্বে থাকছেন বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভার সহ-সভাপতি বোধিমিত্র মহাথেরো, ইউএসটিসি’র সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ডা. প্রভাত চন্দ্র বড়–য়া ও চসিকের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা উপসচিব সুমন বড়–য়া। অনুষ্ঠানটির তত্ত্বাবধানে ছিলেন নিতাই কুমার ভট্টাচার্য এবং প্রযোজনা করেছেন রিফাত মোস্তফা।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 176 People

সম্পর্কিত পোস্ট

Optimized with PageSpeed Ninja