চট্টগ্রাম বুধবার, ১৭ জুলাই, ২০১৯

সর্বশেষ:

১১ জুলাই, ২০১৯ | ২:১৯ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা হ পটিয়া

পটিয়া থানায় ২ দিনের রিমান্ড

কথিত জিনের বাদশাকে কারাগারে প্রেরণ

ধৃত কথিত জিনের বাদশা আনারুল ইসলাম (৩২) কে পটিয়া থানায় ২দিন রিমান্ড শেষে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানার সাবগাছি কালিকাপুর গ্রামের কলিম উদ্দিনের পুত্র। গত রবিবার তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন বলে জানান, পটিয়া থানার মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আবু ইউসুফ।
এতে ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন এবং ৪ জনের নাম প্রকাশ করেন। তারা হলেন গাইবান্দা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানার রোধাপুর গ্রামের সাজু’র পুত্র মো. সবুজ (২৮), উত্তর শীমরা গ্রামের বাচ্চু মিয়ার পুত্র মো. ইউসুফ (৩৫), রানুর প্রকাশ রানু (৪৫), মান্নান প্রকাশ মান্নাত আলী (৪০)। উভয়ে গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানার তালুক কানুপুর ইউনিয়নের নুন্দাপাড়া গ্রামের বাসিন্দার।
উল্লেখ্য, গত ১০ মে পটিয়া উপজেলার খরনা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা প্রবাসী আবদুস শুক্কুরের স্ত্রী মোছাম্মৎ ছেনোয়ারা বেগমের (৩৬) কাছ থেকে মোবাইলে ফোন করে জিনের বাদশা পরিচয়ে নগদ টাকা ও স্বর্ণসহ প্রায় ৭ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। এ ঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী ছেনোয়ারা বেগম বাদি হয়ে গত ১২ মে উক্ত মোবাইল নাম্বার দিয়ে পটিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
এ ব্যাপারে পটিয়া থানার এস আই আবু ইউসুফ জানান, গত ২৯ মে গাইবান্ধা ডিবি পুলিশ আনারুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে ৫৪ ধারায় আদালতে প্রেরণ করে।
পটিয়া থানা পুলিশ মোবাইল ট্রেকিং এর মাধ্যমে আনারুল ইসলামকে সনাক্ত করেন। পটিয়া থানায় মামলার প্রেক্ষিতে তাকে ৭ দিনের রিমান্ডের জন্য গত ৩০ মে পটিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে শুনানী জন্য আবেদন করা হয়। আদালত গত ১ জুলাই কথিত জিনের বাদশা আনারুল ইসলামকে ২দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত রবিবার আদালতে তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এতে ঘটনায় জড়িত কথা স্বীকার করে তিনি ৪ জনের নাম প্রকাশ করেন। তাদেরকে গ্রেপ্তার করা চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।

The Post Viewed By: 52 People

সম্পর্কিত পোস্ট