চট্টগ্রাম বুধবার, ১৭ জুলাই, ২০১৯

সর্বশেষ:

১১ জুলাই, ২০১৯ | ২:০৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চুনার টাল ছাত্তার মেম্বার বাড়ি রোডের দুদর্শা দেখবে কে

শীত, গ্রীষ্ম, বর্ষা কোন ঋতুই যেন বাদ নেই। এমনই নোংরা পানি আর স্যাঁতসেঁতে পরিবেশ বারমাসই তাদের নিত্যসঙ্গী। বর্ষা আসলে তো বলার অপেক্ষাই রাখে না। যখন কোন বৃষ্টি থাকে না তখন সামান্য জোয়ার আসলেই পানি উঠে জমে যায়। আর এ পানি ডিঙ্গিয়ে ছাত্তার মেম্বার বাড়ির মানুষসহ প্রতিদিন যাতায়াত করে দুইশটিরও বেশি পরিবার। এখানে এমন বেহাল দশা সবসময়ই বিরাজমান। এমন অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের কারণে এখানের বাসিন্দারা আক্রান্ত হচ্ছেন নানারকম পানিবাহিত রোগে। স্বাস্থ্যঝুঁকি দিন দিন বেড়েই চলেছে তাদের। প্রতিটি বাড়ির নিচতলা ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে দীর্ঘদিন ধরে। আবার যাদের টিনসেটের ঘর তারা এমন নোংরা পরিবেশ থাকা-খাওয়াসহ দৈনন্দিন জীবনযাত্রা অতিবাহিত হচ্ছে অতিকষ্টে। যেখানে নগরীর উন্নয়নের ছোঁয়া প্রায় সর্বত্রই বিরাজমান সেখানে সিটি কপোরেশনের আওতাধীন ৪ নম্বর ওয়ার্ডের চুনার টাল খলিফা পাড়া শরফুদ্দীন আউলিয়া ছাত্তার মেম্বার বাড়ি রোডে বসবাসকারী এলাকাবাসীর এমন দুদর্শা সত্যিই কষ্টদায়ক। শহরের মধ্যে হলেও বাপ-দাদা চৌদ্দ পুরুষের ভিটা-বাড়ি ছেড়ে অনেকেই এমন কষ্ট সহ্য করতে না পেরে বেরিয়ে যান এখান থেকে।
কিন্তু অসহায় অবস্থায় পড়ে আছেন যাদের বাইরে এসে থাকার মত আর্থিক অবস্থা নেই তারা। দুঃখ করে কথাগুলো বলছিলেন ছাত্তার মেম্বার বাড়ির এক বাসিন্দা। ছাত্তার মেম্বার বাড়ির বাসিন্দা নুরুল আমিন বলেন, এখানে এই রাস্তাটি দীর্ঘ ৪০বছরেরও বেশি সময় ধরে আমরা ব্যবহার করছি। সড়কটি উঁচু করার জন্য আমরা এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা মিলে বেশ কয়েকবার ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাছে গেছি। কিন্তু তিনি আমাদের কথায় দেখতে এলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। তাই আমরা স্থানীয় বাসিন্দারা মিলে যখন রাস্তাটি উঁচু করতে চাই তখন বাধার সম্মুখীন হই।



স্থানীয় বাসিন্দা ইঞ্জিনিয়ার তানভীর ও বাপ্পি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমরা এমন কষ্টে দিন অতিবাহিত করছি। আমাদের বাড়িগুলোর নিচতলা ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। বর্ষাকালে তো বলার অপেক্ষাই রাখে না। এমন নোংরা পানি ডিঙ্গিয়ে আমরা দৈনিক যাতায়াত করি। যেখানে সিটি কপোরেশনের আওতাধীন থাকা প্রায় সবগুলো এলাকা ও রাস্তার উন্নয়ন কাজ হয়েছে সেখানে আমাদের এ রাস্তার কেন বাদ পড়বে? আমাদের এ এলাকায় ৭০টিরও বেশি পরিবার বাস করে আর এমন কষ্ট সবাই ভোগ করছি। এ রাস্তাটি আমরা দীর্ঘ ৪০ বছরেরও বেশি সময় ধরে ব্যবহার করছি। তবে কেন একজন ব্যক্তির কারণে এ রাস্তাটির উন্নয়নের কাজ হবে না।
এবিষয়ে জানতে চাইলে ৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. সাইফুদ্দীন খালেদ সাইফু বলেন, এলাকার মানুষের মধ্যে জায়গা-জমি সংক্রান্ত কিছু সমস্যার কারণে আমি সড়কটি উঁচু করতে পারছি না। যদি তারা তাদের জায়গা-জমি সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান করে আমার কাছে আসে তবে আমি সিটি কপোরেশনের সাথে কথা বলে স্বল্প সময়ের মধ্যেই করে দিতে পারব। এরজন্য খুব বেশি অর্থেরও দরকার হবে না।

The Post Viewed By: 111 People

সম্পর্কিত পোস্ট