সংবাদ: ৩০ তম বর্ষপূর্তির বিশেষ সংখ্যা ৫

নৌ শিল্পের হারানো অতীত

নওশের আলী খান
চট্টগ্রামের নৌ শিল্পের ঐতিহ্য প্রায় ১২শ বছরের। সমুদ্রের তীরে চট্টগ্রামের অবস্থান। পরিবেশগত কারণে সমুদ্র নির্ভর চট্টগ্রামের মানুষ সমুদ্রকে জয়ের নেশায় আবিষ্কার করেছিল এক ধরনের নৌকা ও সাম্পান। ঐতিহাসিকদের তথ্যমতে ৮ম শতক থেকে চট্টগ্রাম থেকে কাঠের তৈরি জাহাজ বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হত। উনিশ শতকের প্রথম দিক পর্যন্ত জাহাজ রপ্তানীর এই ধারা অব্যাহত ছিল। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর ১৯২০ সাল থেকে জাহাজ রপ্তানি বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘ প্রায় এক শতক জাহাজ রপ্তানি বন্ধ থাকার পর ২০১০ সাল থেকে

মধ্যযুগে পুঁথি সাহিত্যে চট্টগ্রামের অবদান

শৈল, সমতল, সরিৎ, সাগর কুন্তলা চট্টলভূমি নৈসর্গিক লীলা-নিকেতন রূপে চিরদিনই ইতিহাস প্রসিদ্ধ। সাহিত্য-সংস্কৃতির চর্চার ক্ষেত্রেও সাধক কর্মবীরদের এক অনুপম সাধনা কেন্দ্র হিসেবে স্বীকৃত। বাংলার কবি-সাহিত্যিকগণ

চট্টগ্রামে থিয়েটারের তিনটি মাইলফলক

থিয়েটার সৃজনশীল শিল্পমাধ্যম বলেই এর পরিবেশিত বিষয় প্রায়শ সমাজ সচেতনতার জ্বলন্ত ছাপ রাখে। এটি সবাই জানেন যে শিল্প সাহিত্য মাধ্যম হিসাবে থিয়েটার অন্যন্য শিল্প সাহিত্য

নাট্যপত্রিকা চট্টগ্রামে

বাংলাদেশের প্রথম নাট্যপত্রিকা ‘থিয়েটার’ এর প্রথম প্রকাশ ১৯৭২ এর নভেম্বর। সেই সূত্রে ‘থিয়েটার’ নামের এই পত্রিকাটি বাংলাদেশের নবনাট্যচর্চার প্রায় সম-বয়সী। ‘থিয়েটার’ পত্রিকার সম্পাদক শ্রী রামেন্দু

চট্টগ্রামের সাহিত্যে প্রথম

একুশে পদকপ্রাপ্ত সুচরিত চৌধুরী

আমি তখনও তাঁকে চোখে দেখিনি, শুধু বাঁশি শুনেছি। শুনতাম প্রায় প্রতি রাতেই। বিশাল বিশাল বৃক্ষের ছায়া ঘেরা নিবিড় নিঝুম শান্ত এলাকাÑ নন্দনকাননে। পাখ-পাখালির কিচিরমিচির ডাক

হাটখোলা

প্রকৃতির মাঝে প্রাণের জানালা

শহরের যান ও জনজটের তেমন ঘনঘটা নেই এখানে। থেকে থেকেই দু একটি গাড়ি, রিকশা ছুটে যাচ্ছে। পথচারীর আনাগোনাও হাতেগোণা। সড়কের পাশে লতাপাতায় জড়াজড়ি করা একটি

ব্যান্ড সঙ্গীতে

চট্টগ্রামের পথচলার দিনকাল

‘যায় দিন ভালো, আসে দিন খারাপ’Ñপ্রবাদটিকে কি সবসময়ের জন্য সঙ্গী করা যায়? কারণ এর উল্টোটাওতো হতে পারে। পারে, তবে বাংলাদেশের সঙ্গীত এর ব্যতিক্রম। সবাই আশা

সোলস্

মুখরিত জীবনের চলার বাঁকে

এবারে আমাদের কয়েকটি দর্শক-শ্রোতা নন্দিত গান দিয়ে শুরু করিÑ‘নদী এসে পথ সাগরে মিশে যেতে চায়’, ‘মুখরিত জীবনের চলার বাঁকে,’ ‘ফরেস্ট হিলের এক দুপুরে’, ‘কলেজের করিডোরে

স্বনির্মিত জাতশিল্পী

বিনয়বাঁশী জলদাস

লোকশিল্প প্রকৃতিদত্ত একটা বিষয়। এই শিল্পের শিল্পীরাও মাটির শাঁসে মূলে গন্ধে বর্ণে গড়ে ওঠেন সহজাতভাবে। সাবলীলতা ও স্বতঃস্ফূর্ততা তাঁদের সৃষ্টিক্ষমতার প্রধান বৈশিষ্ট্য। ফলে অনেক ক্ষেত্রে

রাজপুণ্যাহ সেকাল একাল

রাজপুণ্যাহ, বোমাং সার্কেলের ঐতিহ্যবাহী বার্ষিক কর আদায় অনুষ্ঠান। ১৮৭৫ সালে নবম বোমাংগ্রী সাক হ্ন ঞো রাজপুণ্যাহ’র প্রবর্তন করেন। সেই থেকে বোমাং সার্কেল চিফ ধারাবাহিকভাবে রাজপুণ্যাহ