সংবাদ: সম্পাদকীয়

দার্জিলিং- প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ড : তিন

  প্রফেসর ড. নারায়ন বৈদ্য তখন স্থানীয় সময় অনুসারে বেলা বিকাল পাঁচটা। এবার আমাদের ঐ দিনের ট্যুর প্রোগ্রাম অনুসারে কেনাকাটার জন্য মার্কেটে যাওয়ার পালা। ড্রাইভারকে জিজ্ঞাস করলাম। কেনাকাটার জন্য কোন্ মার্কেটটি ভাল। সে আমাদেরকে ‘চকবাজার’ নামক একটি মার্কেটে নিয়ে গেল। বাংলাদেশের মত বড় বড় মার্কেট দার্জিলিং-এ নেই। অবশ্য এরকম মার্কেট করার জন্য সমতল জায়গাও নেই। ইতিমধ্যে আমাদের কেনাকাটা শেষ করতে দুই ঘন্টা চলে গেল। একটু একটু বৃষ্টিও শুরু হয়েছে। আমাদের হোটেলে পৌছতে হবে। গত দিনের কথা মনে করে একটি গাড়ী (কার) ভাড়া করে হোটেলে যাওয়ার জন্য স্থির করি। কিন্তু গাড়ী পাওয়া না যাওয়াতে অবশেষে গুটি গুটি বৃষ্টির মধ্যে পাহাড়ের গাঁ বেয়ে উঠে যাওয়া রাস্তায় হাঁটতে শুরু করলাম। পাহাড়ের গা বেয়ে আঁকা বাঁকা কত রাস্তা কতদিকে গেছে, তাই আমাদের সঠিক রাস্তা চিনতে পারছিলাম না। দুই একটি দোকানীর সাহায্য নিয়ে কোন রকমে দুইশত ফিট পর্যন্ত উঠে আর পারছিলাম না। পাহাড়ের গায়ে চারটি রাস্তার সঙ্গম স্থলে একজন ট্রাফিককে দেখতে পেলাম। অবশেষে উক্ত ট্রাফিকের

সুষ্ঠু নির্বাচন কি এ দেশে কখনও…

  নাওজিশ মাহমুদ আমরা সকলে সুষ্ঠু নির্বাচন প্রত্যাশা করি। কিন্তু সুষ্ঠু নির্বাচনের নিজেদের ভূমিকা কিভাবে রাখবো, সেই ব্যাপারে আমাদের কারো প্রচেষ্টা নাই । কারণ সুষ্ঠু নির্বাচন আমরা আশা করি রাষ্ট্রের কাছে এবং প্রতিপক্ষের কাছে। নিজেরা যদি সুষ্ঠু নির্বাচনে অনুশীলন না করি, যদি দলের মধ্যে, সমাজের মধ্যে আচরণের মধ্যে রাজনৈতিক সংস্কৃতিতে

সংকোচহীন ভাবনা : জাগ্রত বিবেক

  মা নুষ খুব অদ্ভুত ধর নের। কেন যে মানুষের মগজটা বিগড়ে যায় কে জানে। সবার ভেতরে একটা ভালো মন হয়ত আছে। কিন্তু সেটা জাগ্রত নয়; ঘুমন্ত। ভাবুন তো আগের দিনে একজন গ্রাম দেশের চোরের কথা। বেচারা খাবারের অভাবে একবার কিংবা দু’বার হয়ত কারো বাড়িতে সিঁধ কেটে চুরি করেছে। চোরের

অবৈধ দোকান তুলে দিন

  দিন দিন প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় সড়কগুলোর পাশে অবৈধ দোকানপাট বেড়েই চলছে। নগরীর বেশিরভাগ রাস্তাঘাট এমনিতে সরু। তার ওপর বিভিন্ন দোকান, বাজার, ইট-বালুর অবৈধ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের দৌরাত্ম্যে জনজীবন অতিষ্ঠ। এক শ্রেণির নেতাকর্মীর প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় এ ধরনের অবৈধ কাজে প্রশাসন ও পুলিশ নীরব-নির্বিকার। রাস্তার ওপর হকার

যৌতুককে না বলুন

  খুব নিম্নবিত্ত ঘরেও মেয়ে জন্ম নেয় । তার চোখেও আস্তে আস্তে আকুতির সৃষ্টি হতে থাকে। নরম ত্বকে তার শিশুবেলা থেকেই ধূলি আর কালির ছড়াছড়ি হতে থাকে। একেবারে প্রতিটি মেয়েই এভাবে বড় হয়। তারা একসময় মেয়ে থেকে নারী হয়ে উঠতে থাকে। বাজার থেকে কিনে আনা ছোট্ট আয়নায় তার মুখটি একসময়

সবজি চাষে চাই দেশের চাহিদা ও…

কৃষিপ্রধান বাংলাদেশে সবজিচাষে দারিদ্র্যজয়ের বিপুল সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। ইতোমধ্যে অনেকেই প্রমাণ করেছেন যথাযথ পদ্ধতি অনুসরণে সবজিচাষ করলে সহজেই দারিদ্র্যদূরীকরণে সম্ভব। বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন জনের সাফল্য দেখে গ্রামীণ জনপদগুলোতে এখন নানাজাতের সবজিচাষের দিকে ঝুঁকে পড়ছে সাধারণ মানুষ। সবজিচাষে দারিদ্র্যজয়ের এই আন্দোলন এখন ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশে। এটি আমাদের জন্যে নিশ্চয়ই আনন্দের খবর।

ক্রান্তিকালের দিনগুলোর মানবভুবন

ক্রান্তিকাল সম্ভবত এমনই। ইংরেজিতে যাকে বলা হয় ট্রান্সিশনাল পিরিয়ড। ক্রান্তিকালের সময়টুকুতে অতীত ধরে ধীরে হারাতে থাকে আর আসতে থাকে নতুন দিন। উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার পথে

প্রাণের ভাষায় মনের কথা

এবারসহ নবম বার আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আয়করের প্রতি মানুষের ভীতি দূর করা, তরুণ ও দেশপ্রেমিক নতুন করদাতাদের উদ্বুদ্ধকরণের জন্য ২০১০ সনে প্রথম আয়কর মেলার

সামর্থ্যবান ফাঁকিবাজদের আয়কর নিশ্চিত করা আবশ্যক

মঙ্গলবার বন্দরনগরী চট্টগ্রামসহ সারা দেশে শুরু হয়েছে আয়কর মেলা। ব্যক্তিশ্রেণির করদাতাদের কর দিতে উৎসাহিত করতে এ মেলার আয়োজন করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড। শুরুতেই আয়কর মেলা উৎসবে পরিণত হয়েছে। সারাদেশে আয়কর মেলার প্রথমদিনেই বেশ সাড়া পড়েছে। পূর্ববর্তী বছরের তুলনায় বেড়েছে সেবা গ্রহণকারী, রিটার্ন দাখিলকারী ও আয়কর আদায়ের পরিমাণ। বেড়েছে নতুন ই-টিআইএনের