নিজস্ব প্রতিবেদক

নগরীর পাহাড়তলী রেলওয়ে ওয়ার্কশপে অগ্নিকা-ে ৮ জন শ্রমিক আহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টায় ওয়েলডিংয়ের কাজ চলাকালীন এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন সিদ্দিকুর রহমান (৩৮), জাকির হোসেন (৩৫), মহিউদ্দিন (২৫), আবুল হোসেন (৩০), রাজীব দাশ (৩২), আব্দুল হক (২৬), ফারুক আহমেদ (২৬) ও মো. জুয়েল (২৬)।
পাহাড়তলী রেলওয়ে ওয়ার্কশপের এক শ্রমিক জানান, ‘ওয়ার্কশপের কেরিস ফিটারে রেলওয়ের একটি বগিতে সাইড কাটার সময় অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। এসময় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে অগ্নিনির্বাপন যন্ত্রের ব্যবহার করেন শ্রমিকরা। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর কারখানায় প্রবেশ করলে সেখানে থাকা বিষাক্ত গ্যাসে বেশ কয়েকজন শ্রমিক আহত হন।’ আহতদের মধ্যে সিদ্দিকুর রহমান (৩৮), মহিউদ্দিন (২৫) ও আবুল হোসেন (৩০) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ১৬ নম্বর মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন বলে পূর্বকোণকে জানান চমেক পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক মো. আমির হোসেন। এছাড়া এ ঘটনায় আহত রাজীব দাশ (৩২), আব্দুল হক (২৬), জাকির হোসেন (৩৫), ফারুক আহমেদ (২৬) ও মো. জুয়েল (২৬) রেলওয়ের নিজস্ব হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে পূর্বকোণকে জানান চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক মো. জসিম উদ্দিন ।
মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ‘অগ্নিনির্বাপন যন্ত্রের সঠিক ব্যবহার জানা না থাকায় দুর্ঘটনা কবলিত স্থানে থাকা মনোঅক্সাইড গ্যাসে আক্রান্ত হন শ্রমিকরা। এসময় এ গ্যাসের প্রভাবে আহত হওয়া শ্রমিকদের দ্রুত উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল ও রেলওয়ের নিজস্ব হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়।’ তবে এ ঘটনায় কারো প্রাণহানি হয়নি বলেও জানান তিনি।
পাহাড়তলী ওয়ার্কশপের কর্মব্যবস্থাপক (নির্মাণ) মো. সাইফুল ইসলাম পূর্বকোণকে বলেন, ‘রেলের একটি বগিতে ওয়েলডিংয়ের কাজ চলাকালীন সময়ে বগিতে থাকা একটি সিটে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। এ সময় শ্রমিকরা আতঙ্কিত হয়ে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে চেষ্টা করেন। অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র থেকে বের হওয়া গ্যাসে ৮ জন শ্রমিক আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে চমেক হাসপাতাল ও রেলওয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়।’ আহত শ্রমিকদের সকলেই সুস্থ আছেন বলে জানান তিনি।

Share