দেশের আট বিভাগের মাইভা-ারী শিল্পীদের জমজমাট সংগীত পরিবেশনা, মাইজভা-ারী দর্শন ও সুফিবাদ-প্রেমবাদ নিয়ে আলোচনা এবং মাইজভা-ারী শিল্পী ও সংগঠকদের সম্মাননা প্রদানের মাধ্যমে শেষ হয়েছে জাতীয় মাইজভা-ারী গানের মেলা, ২০১৯। চট্টগ্রামের মাইজভা-ারী মরমী গোষ্ঠীর উদ্যোগে গতকাল শনিবার বিকেলে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় সঙ্গীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে মাইজভা-ারী গানের এ মহাসম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পিএইচপি চেয়ারম্যান সুফি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। মাইভা-ারী মরমী গোষ্ঠীর সভাপতি মো. সিরাজুল মোস্তফার সভাপতিত্বে এতে উদ্বোধক ছিলেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। প্রধান বক্তা ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দ মোহাম্মদ শাহেদ, বাংলা একাডেমির সহকারী পরিচালক ড. সাইমন জাকারিয়া এবং লোকসংগীত গবেষক নাসির উদ্দিন হায়দার। অনুষ্ঠানে মাইজভা-ারী গানের প্রচার ও প্রসারে বিশেষ অবদান রাখায় সৈয়দ নিজাম উদ্দিন মন্টু (মরণোত্তর), মোহাম্মদ সৈয়দ ইউসুফ প্রকাশ টুনু কাওয়াল (মরণোত্তর), সৈয়দ আবু আহম্মেদ, আবদুল গফুর হালী (মরণোত্তর), বিনয়বাঁশী জলদাস (মরণোত্তর), কবিয়াল রমেশ শীল (মরণোত্তর), সন্দীপন দাশ, ফকির শাহাবুদ্দিন, কল্যাণী ঘোষ, শাহজান আলী খান, জামাল হাসান, অধ্যাপক এ ওয়াই এম জাফর ও হাসান শরীফ খানকে সম্মাননা দেওয়া হয়।-বিজ্ঞপ্তি

Share