বই পড়া থেকে আনন্দ, বুদ্ধি ও সক্ষমতা অর্জিত হয়। সক্ষমতা আসে গ্রন্থগত বিদ্যার সঙ্গে বিষয়বুদ্ধির সংশ্লেষে। বই পড়ার অভ্যাস মানব প্রকৃতিকে নিখুঁত করে এবং তা আবার অভিজ্ঞতার দ্বারা বিকশিত হয়।
মাইজভা-ার দরবার শরীফের হযরত জিয়াউল হক মাইজভা-ারী ট্রাস্ট কর্তৃক প্রকাশিত বই সমূহ পড়লে জাগতিক জ্ঞানের পাশাপাশি পরপারের মুক্তির পথ সুগম হবে। এই বইয়ে রচিত নির্যাসগুলো অমূল্য খোরাক। যা শুধু সঠিক পথের দিশারী হয়ে কাজ করবে। গত ২৩ মার্চ নগরীর এম.এম. আলী রোড চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমির স্বাধীনতার লেখক-পাঠক সম্মিলনী অনুষ্ঠানে অনরুদ্ধ মুক্ত মঞ্চের পাশে ট্রাস্ট কর্তৃক প্রকাশিত বই প্রদানকালে ঢাকার বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক ড. সৈয়দ মোহাম্মদ শাহেদ উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। এই সময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম একাডেমির চেয়ারম্যান অনুপম সেন, গবেষক মুহিত কামাল, লেখক ড. আনোয়ার আলম, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অরুণ শীল, সাংবাদিক রাশেদ রউফ, শিল্পী রুমকি গাঙ্গুলি, ভাগ্যধন বড়–য়া, সুভাষ দে, বরুণ কুমার আচার্য বলাই প্রমুখ।-বিজ্ঞপ্তি

Share