স্পোর্টস ডেস্ক

মাত্রই ইনজুরি থেকে ফিরেছেন, আইপিএলে প্রথম ম্যাচে খেলা নিয়ে তাই অনিশ্চয়তা ছিল। বাংলাদেশ ক্রিকেটের টেস্ট এবং টি- টোয়েন্টি অধিনায়ক খেললেন এবং কলকাতা ইডেন গার্ডেনে প্রথম কোন বাংলাদেশী হিসাবে ঘন্টাও বাজালেন। তবে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদকে জয় উপহার দিতে পারেননি তিনি। তার দল হেরেছে ৬ উইকেটে। গতকাল দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে দিল্লি ক্যাপিটালস ৬ উইকেটে ২১৩ রান করে। দলের পক্ষে রিষাভ প্যান্ট মাত্র ২৭ বলে ৭ চার ও সমান ছক্কায় ৭৮ রান করেন। রোহিত শর্মা (১৪) ও কুইন্টন ডি কক (২৭)’রা বড় স্কোরে ব্যর্থ হলে দীর্ঘদিন পর যুবরাজ সিংয়ের অর্ধশতকেও হার এড়াতে পারেনি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ১৯.২ ওভারে সবক’টি উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রানে থেমে যায় তারা। যুবরাজ ৩৫ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় ৫৩ রান করেন। আইপিএলে খেলছেন বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি সাকিব আল হাসান। সুবাদে সবার নজর ছিল কলকাতা ইডেন গার্ডেনে। প্রতিপক্ষ ছিল সাকিবের পুরনো দল নাইট রাইডার্স। প্রথমে ব্যাট করে ৩ উইকেটে ১৮১ রান করার পর ম্যাচটা হেলেছিল সাকিবের দলের দিকেই। কিন্তু গতকাল অন্যদের সাথে

সাকিব আল হাসানও কিছুটা খরুচে বোলিং করেছেন এবং শেষ ওভারে কলকাতার জয়ের জন্য যখন ৬ বলে ১৩ রান দরকার তখন বল হাতে এসে ৪ বলেই দিয়ে দেন ১৪ রান। ম্যাচে চার ওভার বল করে ১টি উইকেট পেলেও ২২ বলে দিয়েছেন ৪২ রান। সুবাদে জয় নিয়ে ফিরতে পারেনি তার দল। গতকাল অবশ্য সাকিব সতীর্থ সবাই খরুচে ছিলেন। শুধু রশিদ খান পুরো ৪ ওভার বল করে ২৬ রানে ১ উইকেট লাভ করেন। এছাড়া ভুবনেশ্বর কুমার ৪ ওভারে ৩৭, সন্দিপ শর্মা সমান ওভারে ৪২ ও সিদ্ধার্থ কাউল ৩৫ রান খরচ করেন। হায়দ্রাবাদ ১৮১ রান করে ডেভিড ওয়ার্নারের ৫৩ বলে ৮৫, জনি বেয়ারস্টোর ৩৯ ও বিজয় শংকরের ২৪ বলে ৪০ রানের সুবাদে। জবাব দিতে নেমে কলকাতা নাইট রাইডার্স নিতিশ রানার ৪৭ বলে ৬৮, রবিন উত্থাপার ২৭ বলে ৩৫ ও আন্দ্রে রাসেলের ১৯ বলে ৪৯ রানের উপর ভর ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮৩ রান তুলে নেয়। তবে শেষ ওভারে আন্দ্রে রাসেল নন, সাকিব পরাস্থ হন শুভমান গিলের (১০ বলে ১৮) কাছে। শেষ চার বলে (প্রথম বলটি ওয়াইডসহ ৫ বল) তিনি শুভমানের কাছে ২টি ছক্কা হজম করেন। হায়দ্রাবাদ তাদের পরের ম্যাচটি খেলবে রাজস্থান রয়েলসের বিরুদ্ধে, ২৯ মার্চ।

Share