নিজস্ব সংবাদদাতা , চবি

নেতৃত্ব তৈরি করতে ছাত্র সংসদের বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য মন্ত্রী হাসন মাহমুদ। ২৮ বছর পর ডাকসু নির্বাচন হয়েছে- এটাই ইতিবাচক। ভালো নির্বাচন হয়েছে বিধায় ভিপি অন্য ছাত্র সংগঠন থেকে এসেছে। আশা করছি এবার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ চাকসু নির্বাচন দেবে।
গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের সুবর্ণ জয়ন্তীতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘ডিগ্রি দেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় নয়। একটি মানসম্পন্ন গবেষণাই পারে বিশ্ববিদ্যালয়কে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে। গবেষণার ওপর জোর দেওয়া জরুরি। শুধু মেধা বিকাশের মাধ্যমে ভালো মানুষ তৈরি করা যায় না। মেধার সাথে মনুষ্যত্ব বোধের সমন্বয় করতে হবে। ভালো ছাত্রকে শুধু পুরস্কৃত করলে হবে না, ভালো মানুষকে পুরস্কৃত করতে হবে।’
এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘স্বপ্নের বাংলাদেশ রচনা করতে স্বপ্নের মানুষ প্রয়োজন। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে উন্নয়নের দিক থেকে বাংলাদেশ মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ডের আগে থাকতো। দেশে এত উন্নয়ন হয়েছে যে, ১০ বছর আগে বিদেশে যাওয়া মানুষগুলো এখন দেশে এসে শহর আর গ্রামের পার্থক্য করতে পারে না। শুধু ভৌত অবকাঠামোগত উন্নয়ন হলে দেশ উন্নত হয় না। আমরা তেমন উন্নয়ন করতে চাই না, যেখানে মানবতা নেই।’
অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। রসায়ন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মনিরুল ইসলামের সভপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরিণ আখতার, পিকেএসএফ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল করিম, চবি বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সফিউল আলম।
রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. জয়নুল আবেদীন সিদ্দিকী ও অধ্যাপক ড. এস এম আবে কাউছারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ও অনুষ্ঠান আয়োজক কমিটির কো-কনভেনর ড. শাহানারা বেগম। অনুষ্ঠানে বিভাগের পক্ষ থেকে অতিথিদের সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে চবির বিভিন্ন অনুষদের ডিনবৃন্দ, হলের প্রভোস্টবৃন্দ, বিভাগীয় সভাপতি, ইনস্টিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালকবৃন্দসহ শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে সকাল ১০টায় রসায়ন বিভাগের শিক্ষক, প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীবৃন্দের সমন্বয়ে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। দুইদিনব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আলোচনা সভা, স্মৃতিচারণ, সেমিনার, র‌্যাফেল ড্র ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

Share