নিজস্ব সংবাদদাতা , রাউজান

মাদক নির্মূলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জিরো টলারেন্সের কথা উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন ‘মাদক নির্মূলে শুধু মাদক আইন পরিবর্তন নয়, ‘সবকিছু’ প্রয়োগের মাধ্যমে মাদককে কঠোরভাবে দমন করার ব্যবস্থা নিয়েছি। তিনি মাদক ব্যবসায়ীদের মাদক ব্যবসা ত্যাগ করে অন্য ব্যবসা করার আহবান জানিয়ে বলেন ‘আল্লাহর দুনিয়াতে অনেক ব্যবসা আছে, সেই ব্যবসায় চলে যান। এমন কোন ধর্ম নাই, যেখানে মাদকসেবন করে নিজেকে নষ্ট করার কথা বলেছেন। আমাদের ইসলাম ধর্ম শান্তির ধর্ম, সেখানে বার বার নিষেধ করা হয়েছে। তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে রাউজানে মাদক, জঙ্গিবাদবিরোধী সমাবেশ ও মতবিনিময় সময় প্রধান অতিথির বক্তব্য একথা বলেন। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে একেএম ফজলুল কবির চৌধুরী অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মাশহুদুল কবীর, উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম এহেছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম হোসেন রেজার সভাপতিত্বে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নিকসন চৌধুরীর সঞ্চালনায় মন্ত্রী আসাদুজ্জামান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জঙ্গিবাদ ও মাদক নিয়ন্ত্রণে কঠোরতার কথা জানিয়ে বলেন ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জঙ্গিবাদ নির্মূল করে দেশকে রক্ষার করার জন্য সর্বস্তরের মানুষকে এগিয়ে আসার ডাক দিয়ে জঙ্গিবাদকে নিয়ন্ত্রণ করায় এদেশ এখন ঘুরে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশের জনগণ কখনো পরাধীনতা মাথা পেতে নয় না, যার উদাহরণ আপনাদের রাউজানের মাস্টার দা সূর্যসেন। তিনি মাদক ও জঙ্গিবাদ সম্পর্কে দেশের মানুষকে সচেতন হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, ‘স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় মাদক, জঙ্গিবাদের ব্যাপারে প্রচারণার ব্যবস্থা নিয়েছি। আমরা একটি সুন্দর বাংলাদেশ চাই।’ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘ডাকসু নির্বাচনে সবাই অংশগ্রহণ করেছে। কে জয়লাভ করলো, কে জয়লাভ করলো না সেটি বড় কথা না। পর্যায়ক্রমে সারাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজগুলোতে ছাত্র সংসদ নির্বাচন হবে। অনুষ্ঠানে এবিএম ফজলে করিম

চৌধুরী এমপি বলেন ‘একসময়ের সন্ত্রাসের জনপদ এখন শান্তির জনপদ। আজকের অনুষ্ঠানকে সফল করার জন্য যারা শ্রম দিয়েছেন, আমি তাদের ধন্যবাদ জানাই। উপজেলা চেয়ারম্যান এহেছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল বলেন ‘হাটহজারী, রাঙ্গুনিয়া, ফটিকছড়ি, রাঙামাটি থেকে ঢুকলেই রাউজান আলাদাভাবে চেনা যায়। সেই আধুনিক রাউজান গড়ার কারিগর আমাদের ফজলে করিম এমপি।’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল পিংক, ক্লিন, গ্রীণ পরিবেশ দেখে রাউজানের এমপির প্রশংসা করেন। এতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্বর্ণের নৌকা সদৃশ কোটপিন পড়িয়ে দেন ফজলে করিম এমপি। এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত এবং ক্রেস্ট, ফুল দিয়ে মন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওহাব, উপজেলা আ.লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমেদ, উত্তরজেলা মহিলা আ. লীগের সভানেত্রী দিলারা ইউসুফ, প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খান, ২য় প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফৌজিয়া খানম মিনা, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু জাফর চৌধুরী, ওসি কেপায়েত উল্লাহ, শ্যামল কুমার পালিত, কাউন্সিলর কাজী মো. ইকবাল, আলমগীর আলী, এডভোকেট দীপক কান্তি দত্ত, এডভোকেট সমীর দাশগুপ্ত, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, নজরুল ইসলাম চৌধুরী, নুরুল ইসলাম চৌধুরী শাহাজান, সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা, ইউপি চেয়ারম্যান দিদারুল আলম, আবদুর রহমান চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম, আব্বাস উদ্দিন আহমেদ, ভুপেশ বড়–য়া, সরোয়ার্দী সিকদার, লায়ন সাহাবুদ্দিন আরিফ, সুকুমার বড়–য়া, নুরুল আবছার বাশি, বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, রোকন উদ্দিন, আবদুল জব্বার, প্রিয়তোষ চৌধুরী, তসলিম উদ্দিন, আবদুস ছালাম, পৌর কাউন্সিলর জানে আলম জনি, এডভোকেট দিলীপ কুমার চৌধুরী, আজাদ হোসেন, শওকত হাসান, জান্নাতুল ফেরদৌস ডলি, জেবুন্নেছা, নাছিমা আকতার, আহসান হাবিব চৌধুরী হাসান, হাসান মো. রাসেল, জিয়াউল হক রোকন, ছাত্রনেতা জিল্লর রহমান মাসুদ, শাখাওয়াত হোসেন চৌধুরী পিবলু, আবদুল লতিফ, মুছা আলম খান চৌধুরী, অনুপ চক্রবর্তী, মো. আসিফ। এর আগে ও পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জমান খান কামাল রাউজান হাইওয়ে থানা, রাউজান থানা ভবন, বাগোয়ান, পূর্বগুজরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নবনির্মিত কার্যালয় পরিদর্শন, পূর্ব গুজরা পুলিশ তদন্ত ফাঁড়ি ভবন উদ্বোধন, পাহাড়তলী ফায়ার স্টেশন ভিত্তিপ্রস্তর, সহকারী পুলিশ সুপারের কার্যালয় ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর, নোয়াপাড়ায় দক্ষিণ রাউজান থানা ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন, নোয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ি, শেখ কামাল অডিটোরিয়াম কমপ্লেক্স ভবন পরিদর্শন, উপজেলা আ.লীগের কার্যালয়, মুন্সিরঘাটায় মাস্টার দা সূর্যসেন মেমোরিয়াল ও পাঠাগার, উত্তরগুজরা আদ্যাপীঠ পরিদর্শন করেন।

Share