নীড়পাতা » আন্তর্জাতিক » মার্কিন সৈন্যরা ‘মোটা’, চীনারা আসক্ত ‘গেমসে’

আন্তর্জাতিক থিংক ট্যাংক’র রিপোর্ট

মার্কিন সৈন্যরা ‘মোটা’, চীনারা আসক্ত ‘গেমসে’

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : আমেরিকান সৈন্যদের ৬০ শতাংশই ‘অতিরিক্ত মোটা’ এবং চীনা সৈন্যরা গেমস ও হস্তমৈথুনে আসক্ত। এছাড়া তাদের আরেকটি বড় সমস্যা ফাস্ট ফুড- এক রিপোর্টে এমন তথ্য প্রকাশ করেছে র‌্যান্ড কর্পোরেশন নামে একটি আন্তর্জাতিক থিংক ট্যাংক।
সেনাবাহিনীতে সৈন্যরা স্বাস্থ্য ও ওজনের দিক থেকে কেমন হবে- তা নির্ধারিত হয় একটা মাপকাঠি দিয়ে, যাকে বলে বডি ম্যাস ইনডেক্স বা বিএমআই। এই বিএমআই হিসাব করে বের করা হয় যে একজন সৈন্যের উচ্চতা এবং ওজনের অনুপাত আদর্শ এব স্বাস্থ্যকর সীমার মধ্যে আছে কিনা।
সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে, পৃথিবীর অনেক দেশেই সৈন্যদের মধ্যেই স্থূলতা, বা অলস জীবনযাপনজনিত সমস্যা তৈরি হয়েছে। এমনকি চীনের সৈন্যরা কম্পিউটার গেমস ও হস্তমৈথুনে আসক্ত হয়ে পড়ছে। র্যারন্ড কর্পোরেশনের হিসেবে দেখা যাচ্ছে- আমেরিকান সৈন্যদের প্রায় ৬৬ শতাংশের ওজনই মাত্রাতিরিক্ত রকমের বেশি। এমন এক সময় এই হিসেব বের হলো যখন আমেরিকান তরুণদের বেশিরভাগই সেনাবাহিনীতে যোগ দিতে আগ্রহী নয়। বলা হচ্ছে, ২০১৭ সালে ১৬ থেকে ২৪ বছরের আমেরিকানদের মধ্যে মাত্র ১১ শতাংশ সামরিক বাহিনীতে যোগ দেবার আগ্রহ দেখিয়েছে। আরও খারাপ খবর হচ্ছে, যারা নিয়োগের পরীক্ষায় বাতিল হয় তাদের এক-তৃতীয়াংশই বাদ পড়ে অতিরিক্ত মোটা হবার কারণে।
অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর জেনারেল জেফরি ফিলিপস লিখেছেন, ‘লতা সংক্রান্ত স্বাস্থ্য সমস্যার চিকিৎসার জন্য কিংবা বাদ-পড়াদের শূন্যস্থান পূরণ করতে মার্কিন সামরিক বাহিনীকে প্রতি বছর দেড়শো কোটি ডলার খরচ করতে হয়।’
আমেরিকান সৈন্যদের মতো বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সেনাদের মধ্যেও রয়েছে নানা রকম সমস্যা। যেমন চীনা সৈন্যদের প্রধান সমস্যা হচ্ছে ফাস্ট ফুড খাওয়া এবং হস্তমৈথুন। গত বছর চীনা সেনাবাহিনীর পত্রিকা ‘পিপলস লিবারেশন আর্মি ডেইলি’র এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানানো হয়।
এক সম্পাদকীয়তে লেখা হয়, নিম্নমানের খাওয়া, দীর্ঘ সময় কম্পিউটার গেমস নিয়ে বসে থাকা, অতিমাত্রায় হস্তমৈথুন করা এবং শারীরিক পরিশ্রমের অভাব- এগুলোই হচ্ছে তরুণ সৈন্যদের ফিটনেস টেস্টে অনুত্তীর্ণ হবার সংখ্যা বেড়ে যাবার কারণ।

Share