ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : প্রথমবারের মতো নিজেদের বার্ষিক প্লাস্টিক উৎপাদনের পরিমাণ নিয়ে কোমল পানীয় উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান কোকা-কোলা স্বীকারোক্তি দিলো । যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, বছরে ৩০ লাখ টন প্লাস্টিক উৎপাদন করে তারা।
মিনিটে উৎপাদন করা হয় দুই লাখ বোতল। সামুদ্রিক প্রাণীকে বিষাক্ত ও আহত করার পাশাপাশি খাদ্যপণ্যে প্লাস্টিকের সর্বব্যাপী উপস্থিতি মানুষের হরমোনের ওপর প্রভাব ফেলছে।
এটি জীবন শঙ্কাকারী নানা রোগ ও আগাম বয়ঃসন্ধির একটি বড় কারণ। প্লাস্টিকের অধিক ব্যবহার আমাদের গ্রহের টিকে থাকার চ্যালেঞ্জও বাড়িয়ে তুলছে।
এসব দূষণ বন্ধের জন্য লাখ লাখ ডলার ব্যয়ে প্রচারণা শুরু করেছে বিভিন্ন সংগঠন। মার্স, নেসলে, ডানো, কোকা-কোলাসহ ৩১টি প্রতিষ্ঠানকে তাদের প্লাস্টিক উৎপাদনের তথ্য প্রকাশের আহ্বান জানিয়েছে পরিবেশকর্মীরা। কোকা-কোলা এর প্রেক্ষিতে আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া এলেন ম্যাকআর্থারকে তথ্য সরবরাহ করেছে।
সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোকা-কোলার হিসাব অনুযায়ী বছরে ৫০০ মিলিলিটার আকারের বোতলের উৎপাদন সংখ্যা ১০৮ বিলিয়ন, যা বিশ্বে মোট উৎপাদিত বোতলের এক পঞ্চমাংশের বেশি।

Share