তেল ক্রয়ের দিক দিয়ে বিশ্বে ভারতের অবস্থান তৃতীয়। এ কারণেই ভারতকে পরমাণু বিদ্যুৎ চুল্লিসহ অন্যান্য যন্ত্রাংশ বিক্রিতে আগ্রহ রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের। তাই পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়াতে পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র তৈরিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে দুই দেশ। ২০০৮ সালে ভারত-মার্কিন বেসামরিক পরমাণু চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ২০১৬ সালে পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র তৈরির কথা প্রথম জানানো হলেও তা আটকে ছিল আইনি জটিলতায়। ভারতের আইন অনুয়ায়ী, পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রে কোনও দুর্ঘটনা হলে তার দায় নিতে হবে তাদেরই পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র যে কোম্পানি বানাচ্ছে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের দাবি ছিল, দুর্ঘটনার দায় নিতে হবে যারা এই বিদ্যুৎকেন্দ্র তদারকি করবে তাদের। সম্প্রতি নতুন করে দু’দেশ এ বিষয়ে একমত হয়েছে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

Share