নিজস্ব প্রতিবেদক

নগরীর ইপিজেড এলাকায় গ্যাসের প্রধান লাইন কেটে যাওয়ায় দু’দিন ধরে দুর্ভোগ পোহাচ্ছে নগরবাসী। গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। শনিবার সকাল ৮টার দিকে ইপিজেড থানাধীন আকমল আলী রোড এলাকায় খাল খনন করার সময় গ্যাসের প্রধান লাইনটি কাটা পড়ে। এতে হালিশহর, পতেঙ্গা, আগ্রাবাদ সিডিএ, আন্দরকিল্লা ও সদরঘাটসহ নগরের অধিকাংশ এলাকায় গত ২ দিন ধরে গ্যাস সরবারহ বন্ধ রয়েছে। টানা দুইদিন ধরে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকায় তীব্র ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে নগরবাসীকে। এছাড়া সিএনজি স্টেশনেও গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকায় নগরের সিএনজি স্টেশনগুলোতে বিভিন্ন পরিবহনের দীর্ঘ লাইন সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল (রবিবার) গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকা এলাকাগুলোতে সরেজমিন পরিদর্শনে দেখা যায়, টানা ২ দিন ধরে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকায় মাটির চুলায় রান্না করছে এলাকাবাসী। এছাড়া খাবারের জন্য হোটেলগুলোতেও ছিলো প্রচ- ভিড়। তবে গ্যাস না থাকায় খাবারের হোটেলগুলোও পড়েছে বিপাকে। বোতল গ্যাস দিয়ে চাহিদা অনুযায়ী খাবার তৈরী করতে পারছেন না তারাও। এতে করে হোটেলে গিয়েও পরিবারের জন্য খাবার কিনতে পারেনি অনেকে।
নগরীর ইপিজেড এলাকার একটি ভবনে মাটির চুলায় রান্নারত গৃহিনী মিনারা বেগম প্রতিবেদককে জানান, ‘দুই দিন ধইরা গ্যাস নাই। কাইল রাইতে না খাইয়া ঘুমাইছি। হোটেলে গিয়াও কোনো খাবার পাই নাই। তাই আইজ সকালে মাটি দিয়া চুলা বানাইছি। এরপর লাকড়ি যোগাড় কইরা রান্না কইরতেছি। খুব কষ্টে আছি বাবা’।
এসময় ইট দিয়ে চুলা বানিয়ে রান্না করতে দেখা যায় জেসমিন নামে এক গার্মেন্টস কর্মীকে। তিনি জানান, ‘গত
শনিবার অফিস থেকে বাসায় এসে দেখি গ্যাস নাই। ভেবেছিলাম কিছুক্ষণ পরেই চলে আসবে। কিন্তু পরে জানতে পারি গ্যাসের লাইন ফেটে গেছে। গ্যাস না থাকায় কাল রাতে কিছুই খাইনি। সকালেও গ্যাস না আসায় আজ (রবিবার) আর অফিসে যাইনি। এখন কিছু রান্না করে খাওয়ার পর দুপুরে অফিসে যাবো’।
এদিকে আকমল আলী রোডের মাইট্টেল খাল এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, কাটা যাওয়া গ্যাসের লাইনটির সংস্কার কাজ করেছে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিভিশন কোম্পানি। এসময় উপস্থিত থাকা কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিভিশন কোম্পানির জেনারেল ম্যানেজার (অপারেশন) মো. আনিছ উদ্দিন আহমেদ জানান, খালটিতে সিটি করপোরেশনের খনন কাজ চলছিলো। শনিবার সকাল ৮ টার দিকে খাল খনন করার সময় খালের ১৫ ফুট গভীরে থাকা গ্যাস লাইনটি ফেটে যায়। প্রায় ২৪ ইঞ্চির ব্যাসের এই গ্যাস পাইপটি ছিলো মূল সরবরাহ লাইন। তাই হালিশহর, পতেঙ্গা, আগ্রাবাদ সিডিএ, আন্দরকিল্লা ও সদরঘাটসহ নগরের অধিকাংশ এলাকায় গত দুইদিন ধরে গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ছিলো। তবে আমরা প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ও লোকবল নিয়ে সংস্কার কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু খালের নিচের মাটিগুলো নরম হওয়ায় সংস্কার কাজে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। তবে আশা করছি সোমবারের (আজ) মধ্যে আমরা সংস্কার কাজ শেষ করে পুনরায় গ্যাস সংযোগ চালু করতে পারবো।
এসময় সংস্কার কাজ পরিদর্শনে আসা স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর জিয়াউল হক সুমন পূর্বকোণকে জানান, খালটিতে সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে ৮ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ চলছিলো। প্রথম ধাপে খনন কাজ চলাকালিন গত শনিবার সকালের দিকে একটি গ্যাস লাইন ফেটে যায়। যার পর থেকে গত দুইদিন ধরে এলাকার গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন রাখা হয়েছে। তবে আমরা লাইনটি সংস্কারের জন্য কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিভিশন কোম্পানিকে সার্বিক সহযোগিতা করে যাচ্ছি। আশা করছি আজ (রবিবার) রাতের মধ্যে সংস্কার কাজ শেষ হবে।

Share
  • 4
    Shares