নীড়পাতা » সম্পাদকীয় » ডাক্তারদের সেবাতেই সুখে থাকবে মানুষ

ডাক্তারদের সেবাতেই সুখে থাকবে মানুষ

আজকাল অধিকাংশ ডাক্তারই বিভাগীয় শহরমুখী বা রাজধানীমুখী হতে ইচ্ছুক, নিজ জেলাতে খুব কমই যাওয়া-আসা করেন। এমনকি সরকারি হাসপাতালগুলোতে চাকরি হওয়া সত্ত্বেও সেখানে নিয়মিত উপস্থিত থাকেন না। তাঁর ব্যস্ততা যেন ব্যক্তিগত চেম্বারেই বেশি। অথচ সরকারি বেতন তাঁরা ঠিকই পেয়ে থাকেন। আর ডাক্তারদের ‘ফি’ চড়াও হয়েছে আজকাল। ১০০০ টাকার নিচে যেন ‘ফি’ নামতেই চায় না। রিপোর্ট দেখাতেও টাকা দিতে হয়। বাধ্য হয়ে গ্রাম থেকে চিকিৎসার জন্য যাঁরা ঢাকায় আসেন তাঁদের অধিকাংশই গরিব মানুষ। তাঁদের যাতায়াতের ভাড়াসহ থাকা-খাওয়ার ঝামেলা, তার ওপরে আবার বড় ডাক্তারের ‘ফি’ সামলাতে হিমশিম খেতে হয়। ডাক্তারদের পাশাপাশি নার্সদেরও সহানুভূতিশীল হতে হবে। সহানুভূতি এবং ভালোবাসাই হোক ডাক্তারদের বৈশিষ্ট্য। আর্থিকভাবে দুর্বলদের থেকে ‘ফি’ না নিয়ে কিংবা কমিয়ে অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতা করা এবং সার্বিকভাবে রোগীর পাশে থাকার সৌহার্দ্য বজায় রাখা উচিত। নিয়মিত জেলাগুলোতে অবস্থান করে সরকারি চিকিৎসাসেবা যথাযথভাবে দেওয়ার মানসিকতা থাকতে হবে। সেবাই হোক ডাক্তারদের ধর্ম।

মো. মাসুদ রানা
ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ,
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

Share