পূর্বকোণ ডেস্ক

বিভিন্নস্থানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, একাত্তর সালের ডিসেম্বর মাসে বিজয় অর্জন করলেও জানুয়ারি মাসে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে সেই বিজয়ের পূর্ণতা আসে।
উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ : আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এম.পি বলেছেন, ১৯৭২ সালে ১০ জানুয়ারি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলার মাটিতে পর্দাপণ করতে না পারলে বাংলাদেশের স্বাধীনতা পূর্ণতালাভ করত না। বঙ্গবন্ধুর জন্ম হয়েছিল বলেই বাঙালি জাতি একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র পেয়েছে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ তারই সুযোগ্য উত্তরসূরী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই চলমান এবং বর্তমানে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ বিশ্বমানচিত্রে একটি মডেল রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠালাভ করেছে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, নবগঠিত সরকার বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে। উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে সংগঠনের সহসভাপতি অধ্যাপক মো. মঈনুদ্দিনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম.এ সালাম। সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জসিম উদ্দিনের সঞ্চালনায় এতে মধ্যে আলোচনায় অংশনেন সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আবুল কালাম আজাদ, ইউনুস গণি চৌধুরী, সাবেক সংগঠনিক সম্পাদক ডা. শেখ শফিউল আজম, সাংগঠনিক সম্পাদক ও পৌর মেয়র দেবাশীষ পালিত, দপ্তর সম্পাদক মহিউদ্দিন বাবলু, প্রচার সম্পাদক জসিম উদ্দিন শাহ, শিক্ষা ও মানবসম্পদক সম্পাদক বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, আইন সম্পাদক এড. ভবতোষ নাথ, উপদেষ্টা এড. এম.এ নাসের চৌধুরী, উপদপ্তর সম্পাদক আলাউদ্দিন সাবেরী, সদস্য মহিউদ্দিন রাশেদ, জাফর আহমেদ, মো: শওকত আলম, সীতাকু- উপজেলা

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আবদুল্ল্যাহ আল বাকের ভূঁইয়া, উত্তর জেলা কৃষকলীগ সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী, কেন্দ্রীয় যুবলীগ সহসম্পাদক মো. সেলিম উদ্দিন, উত্তর জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক এসএম রাশেদুল আলম, উত্তর জেলা মহিলা আ.লীগ সহসভানেত্রী সৈয়দা রিফাত আক্তার নিশু, কেন্দ্রীয় যুবলীগ সদস্য নাজিম উদ্দিন তালুকদার, রাশেদ খান মেনন, যুবমহিলা লীগ সভানেত্রী রওশন আরা রত্না, যুগ্ম আহবায়িকা এডভোকেট জুবাইদা সরোয়ার নিপা, উত্তর জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি তানভীর হোসেন তপু, সাধারণ সম্পাদক মো. রেজাউল করিম প্রমুখ।
মহানগর আওয়ামীলীগ : মহানগর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমাদের বিজয়কে অর্থবহ করার জন্য বঙ্গবন্ধুর আরাধ্য সোনার বাংলা বাস্তবায়নে শত কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। অথনৈতিক মুক্তিই হল বাংলাদেশের স্বাধীনতার ভিত্তি। এ ভিত্তি বির্নিমাণে নেত্রী যাদের দায়িত্ব দিয়েছেন তাদেরকে সচেতনভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। তিনি গতকাল বিকেলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে মহানগর আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় একথাগুলো বলেন। তিনি বলেন, অর্জিত বিজয়ে আত্মতুষ্টি প্রয়োজন নেই, সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন যারা আমাদের দলকে ক্ষমতায় এনেছেন তাদেরকে একটি সুন্দর বাসযোগ্য মাতৃভূমি উপহার দেয়া। তিনি ঘোষণা করেন দলকে তৃণমূল স্তর থেকে সংগঠিত করার জন্য সকল প্রস্তুতি ও উদ্যোগ আগে থেকেই ছিল। এখন তা প্রয়োগের পালা। তিনি এ নিয়ে কোন বির্তক বা সমালোচনার অবকাশ নেই। আমি কথা দিচ্ছি যারা যোগ্য এবং পরীক্ষিত তারাই নেতৃত্বে আসবেন। তাদেরকে নিয়েই দল সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। সভাপতির ভাষণে মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ৩০ ডিসেম্বর একটি ঐতিহাসিক দিক। মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, এডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, খোরশেদ আলম সুজন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী, কার্যনির্বাহী সদস্য শেখ শহিদুল আনোয়ার, বখতিয়ার উদ্দিন খান, থানা আওয়ামী লীগের আনসারুল হক, ওয়ার্ড আ. লীগের মহিম উদ্দিন মহিম, মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু। সভায় উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, এম জহিরুল আলম দোভাষ, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ আবদুচ ছালাম, উপদেষ্টা শেখ মোহাম্মদ ইছহাক, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য শফিকুল ইসলাম ফারুক, এডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, হাজী মো. হোসেন, হাজী জহুর আহমদ, দিদারুল আলম চৌধুরী, আবু তাহের, উপ সম্পাদক শহিদুল আলম, জহরলাল হাজারী, কার্যনির্বাহী সদস্য হাজী আবুল মনসুর, মো. নরুল আলম, মহব্বত আলী খান, অমল মিত্র, রোটারিয়ান মো. ইলিয়াছ, হাজী বেলাল আহমদ, থানা আওয়ামী লীগের হাজী শফিকুল ইসলাম, হাজী ছিদ্দিক আলম, হাজী মো. ইছহাক, কাজী আলতাফ হোসেন, রেজাউল করিম কায়সার, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের শামসুল আলম, সৈয়দ মো. জাকারিয়া, মো. জাামাল উদ্দিন, নুরুল আজিম নুরু প্রমুখ।
দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ : দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ বলেছেন, আমাদের ইতিহাসে ১০ জানুয়ারি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ দিন। বিজয় অর্জনের পর বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতির কারণে যে অসম্পূর্ণতা বিরাজ করছিল, ১০ জানুয়ারি স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের ফলে তা পূর্ণতা পায়। তিনি ফিরে আসায় জাতীয় ঐক্য মজবুত হয়। বিদেশী রাষ্ট্রসমূহ একে একে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দান করে। বঙ্গবন্ধুর বিশাল ব্যক্তিত্বের উজ্জ্বলতায় বিশ্ব নেতৃত্ব মোহিত হয়ে বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধুকে অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসাবে মেনে নেয়। শেখ হাসিনার লাখো কর্মীর ঐক্যই এই বিজয়কে সহজ করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন উপলক্ষে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
দক্ষিণ জেলা আ. লীগের শ্রম সম্পাদক খোরশেদ আলমের সঞ্চালনায় আন্দরকিল্লাস্থ সংগঠনের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, দক্ষিণ জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সহসভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, আবুল কালাম চৌধুরী, মোহাম্মদ ইদ্রিস, হাবিবুর রহমান চেয়ারম্যান, এডভোকেট সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, এডভোকেট মির্জা কছির উদ্দিন, এডভোকেট জহির উদ্দিন, প্রদীপ দাশ, আবু জাফর, বোরহান উদ্দিন এমরান, এডভোকেট মুজিবুল হক, তিমির বরণ চৌধুরী, আবদুল কাদের সুজন, আবদুল হান্নান চৌধুরী মঞ্জু, নুরুল আলম, দেবব্রত দাশ, সৈয়দ জামাল আহমদ, চেয়ারম্যান নাছির আহমদ, সৈয়দুল মোস্তফা চৌধুরী রাজু, ছিদ্দিক আহমদ বি.কম, মাহবুবুর রহমান সিবলী, শাহিদা আক্তার জাহান, আওয়ামী লীগ নেতা আবু সৈয়দ, দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মোহাম্মদ জোবায়ের প্রমুখ।
এম এ লতিফ এমপি : স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম-১১ আসনের সাংসদ এম. এ. লতিফ’র উদ্যোগে আগ্রবাদস্থ পুরাতন চেম্বার হাউস মিলনায়তনে কেন্দ্রীয়, মহানগর ও চট্টগ্রাম-১১ আসনের আওয়ামীলীগ ও এর সহযোগী অঙ্গ সংগঠনসমূহের নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বন্দর থানা আ.লীগ সভাপতি মোহাম্মদ নুরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তারা উপরোক্ত অভিমত ব্যক্ত করেন। সভায় বক্তারা বলেন, ১০ জানুয়ারি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু যুদ্ধবিধ্বস্ত স্বাধীন দেশে ফিরে আসায় স্বাধীন দেশের মানুষ পুনরায় শক্তি ফিরে পায়। বক্তারা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা ও তার যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার মত প্রকৃত দেশপ্রেমিক দরকার বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। বন্দর সিবিএ’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নায়েবুল ইসলাম ফটিক’র সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এনামুল হক চৌধুরী, কেন্দ্রীয় শ্রমিকলীগের যুগ্ম-সম্পাদক সফর আলী মহানগর আওয়ামীলীগ’র উপদেষ্টা শেখ মাহমুদ ইসহাক । এসময় উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর এইচ এম সোহেল, ওয়ার্ড আ.লীগ নেতা যথাক্রমে আব্দুল আজিজ মোল্লা, আবদুল্লাহ আল ইব্রাহিম, জাফরুল হায়দার (সবুজ), নজরুল ইসলাম, সেলিম রেজা, হাজী আলী বক্স, হাজী মো. মহসীন, জহির আহমদ চৌধুরী, সালাউদ্দিন ইবনে আহমদ, মো. শফিউল আলম, মো. আসলাম, জাহিদুল আলম মিন্টু, এস. এম. নাছির উদ্দিন, মো. ইসকান্দর মিয়া, সৈয়দ নুরনবী (লিটন), আব্দুল মান্নান চৌধুরী, আবদুল মালেক, মো. ছানাউল্লাহ প্রমুখ।
চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয় : মহাকালের মহানায়ক স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস (১০ জানুয়ারি) উপলক্ষে ১০ জানুয়ারি চবি বঙ্গবন্ধু চত্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্য দান করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। এরপর পুস্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চবি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার এবং বঙ্গবন্ধু পরিষদ চবি’র পক্ষ থেকে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. মো. রাশেদ-উন-নবী ও সাধারণ সম্পাদক মশিবুর রহমান। এসময় উপস্থিত ছিলেন চবি বিভিন্ন অনুষদের ডিন, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, রেজিস্ট্রার, হলের প্রভোস্ট, সহকারী প্রক্টর, বিভাগীয় সভাপতি, ইনস্টিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক, অফিস প্রধান, অফিসার সমিতি, কর্মচারী সমিতি, কর্মচারী ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ সদস্য এবং বিশ^বিদ্যালয় পরিবার সদস্য। উপাচার্য সংক্ষিপ্ত ভাষণের শুরুতে বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা, স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি জাতীয় চারনেতা, মহান মুক্তিযুদ্ধে ত্রিশলক্ষ শহীদ, ‘৭৫ এর ১৫ আগস্ট নির্মমভাবে শহীদ বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যবর্গের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে নির্যাতিত দু’লক্ষ জায়া-জননী-কন্যার প্রতি বিশেষ সম্মান প্রদর্শন করেন। উপাচার্য বলেন, বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতির সকল প্রেরণার উৎস। যাঁর জন্ম না হলে বিশ^ মানচিত্রে প্রতিষ্ঠা হতো না বাংলাদেশ নামক স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র।
সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ : সংগঠনের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের আাহবায়ক ও চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন, দীর্ঘ নয়মাস পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী থেকে মুক্ত হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই দেশে প্রত্যাবর্তন করেন। এ দেশে আগমনের পর রেসর্কোস ময়দানে তাঁর ভাষণে তিনি বিধ্বস্ত বাংলাদেশের মানুষকে আলোর পথে পরিচালিত করার জন্য দিক নির্দেশনামূলক ভাষণ প্রদান করেন। এর মধ্য দিয়ে দিয়ে এদেশের মুক্তিকামী মানুষ শান্তির ঠিকানা লাভ করেন। নয় মাস যুদ্ধের পর বাঙালি মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা লাভ করে বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ একটি স্বাধীন স্বার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন মাতৃভমিতে ফিরে আসার পূর্বে দিল্লীতে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্ধিরা গান্ধীকে বলেছেন অবিলম্বে মিত্র বাহিনীকে বাংলাদেশ থেকে ফিরিয়ে আনতে হবে।
জেলা আইনজীবী সমিতির তথ্য প্রযুক্তি সম্পাদক মো. রাশেদুল আলম রাশেদের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সমিতির সিনিয়র সহসভাপতি মো. ছুরত জামাল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অশোক কুমার দাশ, মো. আবদুর রশীদ, সিনিয়র আইনজীবী এম এ নাসের চৌধুরী, মুজিবুর রহমান চৌধুরী, সৈয়দ মোক্তার আহাম্মদ, তুষার সিংহ হাজারী, নাজমুল হক, আইয়ুব খান, কাজী ছানোয়ার আহমেদ লাভলু, কেশব চন্দ্র নাথ, প্রণব মজুমদার, মো. নোমান চৌধুরী, অনুপম চক্রবর্ত্তী, দিদারুল আলম, আনোয়ার হোসেন আজাদ, তসলিম উদ্দিন, তপন কুমার দাশ মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন, টি.আর খান, পাপড়ী সুলতানা, কামেলা খানম রুপা, জুবাঈদা ছরওয়ার চৌধুরী নিপা, আর.কে আচার্য, সমিতির নির্বাহী সদস্যা সেলিনা আকতার, ফারহানা রবিউল লিজা প্রমুখ। সভার শুরুতে সংগীত পরিবেশন করেন সমিতির সদস্য যথাক্রমে দুলাল চন্দ্র দেবনাথ, সুচিত্রা লালা মুন্নী, মো. কাইছার উদ্দিন, রিগ্যান বড়–য়া, সুব্রত শীল রাজু, অর্পিতা প্রমুখ।
নগর মহিলা আওয়ামী লীগ : বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সংগঠনের সভানেত্রী হাসিনা মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে তাঁর চশমা হিলস্থ নিজ বাসভবনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, ১৬ ডিসেম্বর দেশ হানাদার মুক্ত হলেও হাহাকার ছিল বঙ্গবন্ধু কখন মৃত্যুকূপ থেকে ফিরে আসবেন। তিনি এসেছিলেন এই দিনে, তার আগে নয়া দিল্লীতে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সহযোদ্ধা ইন্দিরাগান্ধীকে বলেছিলেন আপনার সেনাবাহিনীকে ফিরিয়ে নেবেন কিনা। তাই বঙ্গবন্ধু বাঙালি, বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু অভিন্ন সত্ত্বা ইন্দিরা কথা রেখেছিলেন। আওয়ামী লীগের সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বির্নিমানে আমাদেরকে কাজ করে যেতে হবে। স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসটি মহা আনন্দের তবে এই দেশকে জঙ্গীবাদমুক্ত করার জন্য আমাদের লড়াই অব্যাহত রাখতে হবে।
হোসনে আরা বেগমের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আঞ্জুমান আরা চৌধুরী আনজী, সহ সভাপতি বিলকিছ কলিমউল্লাহ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর নীলু নাগ, মালেকা চৌধুরী, খুরশিদা বেগম, হাসিনা আক্তার টুনু, লায়লা আক্তার এটলী, হুরে আরা বিউটি, আয়শা আলম চৌধুরী, নাজম মাওলা, মনোয়ারা বাহাদুর, শিমলা দাশ, আয়েশা আক্তার পান্না, মমতাজ বেগম, রুবি আক্তার, বিলকিছ আলম, সোনিয়া ইদ্রিস প্রমুখ।
চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে বেলা ১২টায় বিশ^বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ। এ সময় বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, ছাত্রছাত্রী ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। উপাচার্যের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর শিক্ষক সমিতি ও অফিসার সমিতির পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন ফিশারিজ অনুষদের ডিন ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. এম. নুরুল আবছার খান, রেজিস্ট্রার মির্জা ফারুক ইমাম, প্রক্টর প্রফেসর গৌতম কুমার দেবনাথ, প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন, প্রফেসর ড. ভজন চন্দ্র দাস, অফিসার সমিতির সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান, পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) মো. আবুল কালাম প্রমুখ।
মহানগর তাঁতী লীগ : স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে গতকাল ১০ জানুয়ারি সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন চট্টগ্রাম মহানগর তাঁতী লীগের নেতৃবৃন্দ। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। মহানগর তাঁতী লীগের আহবায়ক নুরুল আমিন মানিকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ। রত্নাকর দাশ টুনুর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সদস্য সৈকত দাশ, মো. সরোয়ার্দী, আজিজুল হক, প্রকৌশলী অমিত ধর, সাইফুল ইসলাম মারুফ, দীপ্ত সিংহ, সৈয়দ শাহরিয়াদ, মো. কফিল উদ্দিন, আবদুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ।
খাগড়াছড়ি : আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানায়, খাগড়াছড়িতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে খাগড়াছড়ি নারিকেল বাগানস্থ জেলা আ.লীগের কার্যালয় থেকে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করে সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল আলমের নেতৃত্বে এক শোভাযাত্রা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে টাউন হলস্থ বঙ্গবন্ধুর চেতনা মঞ্চে গিয়ে মিলিত হয়।
এর আগে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের অস্থায়ী কার্যালয় থেকে কদমতলীস্থ কার্যালয় থেকে সিনিয়র সহ-সভাপতি রণ বিক্রম ত্রিপুরার নেতৃত্বে শোভাযাত্রা প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে টাউন হলস্থ বঙ্গবন্ধুর চেতনা মঞ্চে গিয়ে একত্রিত ভাবে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এসময় এক মিনিট নীরবতা পালন করে। পরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, খাগড়াছড়ি জেলা আ.লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি রণ বিক্রম ত্রিপুরা।
এতে সময় উপস্থিত ছিলেন, পৌর মেয়র মো. রফিকুল আলম, জেলা আ.লীগের উপদেষ্টা দোস্ত মোহাম্মদ চৌধুরী, জেলা আ.লীগ নেতা তপন কান্তি দে, নির্মলেন্দু চৌধুরী, দিদারুল আলম দিদার, মংশেইপ্রু চৌধুরী অপু, মুক্তিযোদ্ধা রইস উদ্দিন,পাজেপ সদস্য পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল, জেলা যুবলীগ সভাপতি যতন কুমার ত্রিপুরা, সাধারণ সম্পাদক ইসলমাইল হোসেন, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি টিকো চাকমা,সাধারণ সম্পাদক জহির উদ্দিন ফিরোজ, জেলা শ্রমিকলীগ নেতা নুর নবী,সদর উপজেলা আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক চন্দন কুমার দে, পৌর আ.লীগ সভাপতি জাবেদ হোসেন প্রমুখ।
রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগ : আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানায়, স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে আলোচনা সভা গতকাল মুন্সিরঘাটাস্থ উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আ.লীগের সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমেদ। বক্তব্য রাখেন যুগ্ন সম্পাদক বশির উদ্দিন খান, সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজ, আ. লীগ নেতা জসিম উদ্দিন চৌধুরী, নজরুল ইসলাম চৌধুরী, নুরুল ইসলাম চৌধুরী শাহাজান, ইউপি চেয়ারম্যান বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, আ.লীগ নেতা সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা, কামাল উদ্দিন, কাউন্সিলর জানে আলম জনি, সারজু মো. নাছের, আহসান হাবিব চৌধুরী হাসান, জিল্লুর রহমান মাসুদ, শাখাওয়াত হোসেন চৌধুরী পিবলু, আবু ছালেক, ওয়াহেদ বাবলু, ইমরান হোসেন জীবন, ছাবের হোসেন প্রমুখ।
পটিয়া উপজেলা আ.লীগ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে এক আলোচনা সভা পটিয়াস্থ সংসদ সদস্যের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আ.লীগের সভাপতি আ.ক.ম শামসুজ্জামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশীদের পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোতাহারুল ইসলাম চৌধুরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সামশুদ্দিন আহমেদ, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান দেবব্রত দাশ, দক্ষিণ জেলা আ.লীগে স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক তিমির বরণ চৌধুরী, সদস্য নাছির আহমদ চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়মীলীগ নেতা আব্দুল খালেক চেয়ারম্যান, আলমগীর খালেদ, আইয়ুব বাবুল, আলমগীর আলম, আজিমুল হক, আবু ছালেহ চৌধুরী, ফজলুল হক আল্লাই, এমএনএ নাছির, শহীদুল ইসলাম চৌধুরী, এমএজাজ চৌধুরী, কাউন্সিলর গোফরান রানা, কামাল উদ্দিন বেলাল, এডভোকেট হোসাইন রানা, পৌরসভা যুবলীগ সভাপতি নুর আলম ছিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম, মহিলা আ.লীগ নেত্রী মাজেদা বেগম শিরু, সাজেদা বেগম, উপজেলা আ.লীগ নেতা বদিউল আলম তুষার, রবিউল হোসেন রুবেল, ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি সম্পাদকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আবদুল্লাহ আল হারুন, জয় প্রকাশ দত্ত, রাজু সরকার, আনোয়ার উদ্দিন, সরোয়ার উদ্দিন, রবিউল আলী, মিহির চক্রবর্তী, প্রবোধ রায় চন্দন, জসিম উদ্দিন, মোরশেদুল আলম, শহীদুল ইসলাম জুলু, আবদুল মোনাফ, যুবলীগ নেতা আবুল হাসনাত ফয়সাল, মাইনুল হক রাশেদ, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তারেকুর রহমান তারেক, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কোরবান আলী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাতুল বশর চৌধুরী, পৌরসভা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইকবালুর রহমান ওপেল, কলেজ ছাত্রলীগ সাবেক সভাপতি নাজমুল সাকের ছিদ্দিকী প্রমুখ।
বাঁশখালী : আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানায়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী এম.পি বলেছেন, পশ্চিমা হানাদার বাহিনী চক্রান্তে বাঙালি জাতি সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করার পরও জাতির পিতাকে ক্ষমতায় যেতে দেয় নাই। তাই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালে ৭ মার্চে ঐতিহাসিক সরওয়ার্দী উদ্যানে লাখো লাখো বাঙালি জনতার মাঝে বলেছিলেন এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে বাঁশখালী পৌর মেয়র মুক্তিযোদ্ধা শেখ সেলিমুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস ও নবনির্বাচিত সাংসদের গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠান বাঁশখালী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুল গফুরের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন আ.লীগ নেতা মাহফুজুল হক চৌধুরী, মো. খোরশেদ আলম, মুজিবুর রহমান চৌধুরী, ডা. ফরুক আহমেদ, রেজাউল করিম চৌধুরী, অধ্যাপক বিকাশ রঞ্জন ধর, চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন চৌধুরী খোকা, শ্যামল কান্তি দাশ, সরোয়ার আলম, চেয়ারম্যান রশিদ আহমদ চৌধুরী, চেয়ারম্যান আ.ন.ম. শাহাদাত আলম, চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ, চেয়ারম্যান কফিল উদ্দিন, চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চৌধুরী, চেয়ারম্যান অধ্যাপক তাজুল ইসলাম, সাবেক চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক সিকদার, চেয়ারম্যান মো. ইয়াছিন, চেয়ারম্যান এডভোকেট বদরুদ্দিন চৌধুরী, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নুর হোসেন, ফিরোজ আহমদ, আখতার হোসেন, জাহেদ আকবর জেবু, জেলা পরিষদ সদস্য শাহিদা আক্তার জাহান, রেহেনা আক্তার কাজমি, রায়ান জান্নাত, মিজান সিকদার, ইমরুল হক চৌধুরী, নঈম উদ্দিন মাহফুজ, নুরুল আলম, ওবাইদুল্লা প্রমুখ।
বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদ : সংগঠনের গতকাল দুপুরে নগরীর কে বি আমান আলী রোড ফুলতল মেরন সান স্কুল এন্ড কলেজে ‘বঙ্গবন্ধু জানো’ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করে। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহিম ‘বঙ্গবন্ধু জানো’ শীর্ষক একটি প্রবন্ধ শিক্ষার্থীদের মাঝে উপস্থাপন করেন। মেরিট বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. সানাউল্লাহর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন নগর আ. লীগের সহ-সভাপতি নঈম উদ্দিন আহমদ চৌধুরী। প্রধান আলোচক ছিলেন, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মাহমুদুল হক, নগর যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হাসান, নগর আ. লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক মো. শহীদুল আলম, মোহাম্মদ জহির, মঞ্জুর হোসাইন, সাহেদুল ইসলাম সাহেদ, নুরুল আবছার, ডা. জামাল উদ্দিন, মীর আবদুর রহমান মামুন, এস.এম. সামাদ, মো. সোহেল, বোরহান উদ্দিন গিফারী প্রমুখ।
ফিরিঙ্গীবাজার ওয়ার্ড : স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ফিরিঙ্গী বাজার ওয়ার্ড যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য মো. ইমরান কাদের, নাসির আহমদ, সাবেক ছাত্রনেতা তাজউদ্দিন রিজভী, সাইফুদ্দিন আহমেদ, মহানগর যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা এনামুল হক, তারাপদ দাশ, আবদুল মতিন, যুবলীগ নেতা জামাল উদ্দিন মাসুম, আবদুল গফুর সুমন, সামিউল হাসান রুমন, মো. রাশেদ, মহানগর ছাত্রলীগ নেতা অনিন্দ্য দেব, যুবনেতা মো. সেন্টু, ছাত্রনেতা সৌরভ দাশ প্রমুখ।

Share
  • 1
    Share