পূর্বকোণ প্রতিনিধি , রাঙামাটি অফিস

রাঙামাটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পঞ্চম ব্যাচের (২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষের) ছাত্র-ছাত্রীদের পরিচিতি ও শিক্ষা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক ইনষ্টিটিউট মিলনায়তনে রাঙামাটি সরকারি মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. টিপু সুলতানের সভাপতিত্বে ক্লাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে

প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও রাঙামাটি আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার। এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, রাঙামাটি রিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ রিয়াদ মেহমুদ, জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদ, জেলা পুলিশ সুপার আলমগীর কবীর, মেডিকেল কলেজের প্রকল্প পরিচালক ও সিভিল সার্জন ডা. শহীদ তালুকদার ।
দীপংকর তালুকদার বলেন, ‘নানা বাধা ও প্রতিবন্ধকতা সত্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় অবস্থানের কারণে রাঙামাটি মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হয়েছে। রাঙামাটি মেডিকেল কলেজের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে সফলভাবে চারটি বছর শিক্ষা কার্যক্রম অতিক্রান্ত হয়েছে। আগামী বছর রাঙামাটি মেডিক্যাল কলেজ থেকে ডাক্তাররা বেরিয়ে আসবে। রাঙামাটি মেডিকেল কলেজের ডাক্তাররা যখন স্বাস্থ্য সেবা দেয়া শুরু করবে তখন এই প্রতিষ্ঠান সর্ম্পকে যারা এতদিন বিভ্রান্তি ছড়িয়েছিল তারা তাদের ভুল বুঝতে পারবে। রাঙামাটি মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা দেশের অন্য জেলার মেডিকেল কলেজগুলো থেকে সম্পূর্ণ আলাদা পরিচয় বহন করবে। ত্যাগ-তীতিক্ষাময় পরিস্থিতিতে পথচলা রাঙামাটি মেডিকেল কলেজের বর্তমান শিক্ষার্থীরা পাহাড়ের একটি নতুন ইতিহাসের অংশ হয়ে থাকবে।’
উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ১০ জানুয়ারি উপজাতীয় একটি বিশেষ মহলের প্রবল বিরোধীতার মুখে রাঙামাটি মেডিকেল কলেজের যাত্রা শুরু হয়। সে সময় মেডিকেল কলেজের পক্ষ-বিপক্ষের সংঘর্ষে মনির হোসেন নামে এক ব্যক্তি প্রাণ হারান। সেই থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কড়া প্রহরায় রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের করোনারী ইউনিটে একটি বহুতল ভবনে মেডিকেল কলেজের অস্থায়ী ক্যাম্পাস গড়ে তুলে কলেজের কার্যক্রম শুরু হয়। গত ৪ বছর ধরে কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম এই অস্থায়ী ক্যাম্পাসে পরিচালিত হয়ে আসছে।

Share