নীড়পাতা » আন্তর্জাতিক » ফ্রান্সের স্ট্রাসবার্গ হামলা, বহু হতাহত

হামলাকারী পালিয়েছে, তবুও খুঁজছে ৩৫০ পুলিশ!

ফ্রান্সের স্ট্রাসবার্গ হামলা, বহু হতাহত

হামলার কয়েক ঘণ্টা আগেই সন্দেহভাজনের বাড়িতে গ্রেনেডের…

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : এখনও নাম-পরিচয় প্রকাশ না করলেও স্ট্রাসবার্গের সন্দেহভাজন হামলাকারী সম্পর্কে কিছু তথ্য সরবরাহ করেছে ফরাসি পুলিশ। উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তার দেশ ছাড়ার আশঙ্কা প্রকাশ করলেও সাড়ে তিনশ পুলিশ কর্মকর্তা তাকে হন্যে হয়ে খুঁজছে বলে জানানো হয়েছে। পুলিশের দাবি, মঙ্গলবার রাতের হামলাকারীর সম্পর্কে আগে থেকেই জানতেন তারা। হামলার দিন সকালে বাড়িতে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে তাকে না পাওয়া গেলেও সেখান থেকে কিছু গ্রেনেড উদ্ধার করা হয়েছিল। সরকারবিরোধী উত্তাল আন্দোলনের মধ্যেই এমন একটি হামলা হলো।
অর্থনৈতিক সংকট এবং জ্বালানির ওপর কর বাড়ানোর প্রতিবাদে গত ১৭ নভেম্বর থেকে ফ্রান্সে শুরু হওয়া বিক্ষোভ ক্রমান্বয়ে সরকারবিরোধী আন্দোলনে রূপ নেয়। ধারাবাহিক আন্দোলনে ফ্রান্সের নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বিক্ষুব্ধ মানুষের নজিরবিহীন সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে অন্তত চারজন নিহত এবং শত শত মানুষ আহত হয়। গ্রেফতার করা হয় সহ¯্রাধিক বিক্ষোভকারীকে। দেশজুড়ে কয়েক সপ্তাহ ধরে এমন অস্থিরতার মধ্যেই সোমবার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। প্রতিশ্রুতি দেন, আন্দোলনকারীদের দাবি মেনে নেবেন। স্ট্রাসবার্গের বিখ্যাত ক্রিসমাস মার্কেটের কাছে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত আটটার দিকে হামলা চালায় ওই সন্দেহভাজন বন্দুকধারী। টহলরত নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধ হয় তার। এ ঘটনায় প্রাণ হারান তিনজন। আহত হন আরও ১৩ জন। পুলিশের পক্ষ থেকে সন্দেহভাজন হামলাকারীর বয়স ২৯ বলে জানানো হলেও তার নাম-পরিচয় জানানো হয়নি। স্থানীয় কিছু সংবাদমাধ্যমের দাবি অনুযায়ী তার নাম শেরিফ সি। তাকে উগ্রবাদী বিবেচনা করছে পুলিশ। হামলার এক পর্যায়ে কর্তৃপক্ষ জানায়, আহত অবস্থায় পালিয়ে যান ওই ব্যক্তি। এই ঘটনার পর নুডর্ফের বাসিন্দাদের ঘর থেকে বের না হওয়ার ব্যাপারে সতর্ক করা হয়। ফ্রান্সের সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিট এর তদন্ত শুরু করেছে।

Share