নীড়পাতা » খেলাধুলা » বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে ইউনিসেফ

বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে ইউনিসেফ

ডিসেম্বরের শুরুতেই জানা গিয়েছিল, বাংলাদেশের নারী ফুটবলের নতুন সঙ্গী হয়েছে জাতিসংঘ শিশু তহবিল ইউনিসেফ। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সঙ্গে ‘চ্যারিটি পার্টনার’ হিসেবে দুই বছরের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছে তারা। এবার জানা গেল, বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গেও যুক্ত হয়েছে ইউনিসেফ। কিশোর ও কিশোরীদের ক্রিকেটের সঙ্গে সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে ইউনিসেফ বাংলাদেশের খেলাধুলা বিষয়ক কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে দুই বছরের জন্য চুক্তি করেছে ইউনিসেফ। বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরি ও ইউনিসেফের বাংলাদেশ প্রতিনিধ এডওয়ার্ড বেগবেদা এই চুক্তি সই করেন। চুক্তি অনুযায়ী, বিশ্বখ্যাত ইউনিসেফ লোগো এখন থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের (পুরুষ, নারী ও অনূর্ধ্ব-১৯ দল) জার্সিতে শোভা পাবে। কলারের বাম পাশে থাকবে এই লোগো। এর মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো মা ও শিশুর প্রতীক সম্বলিত এই লোগো আন্তর্জাতিক কোনো ক্রিকেট দলের জার্সিতে স্থান পেতে যাচ্ছে। বিসিবি কার্যালয়ে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার সময় বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তারকা অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। ফটোসেশনেও অংশ নেন তিনি। চুক্তি স্বাক্ষরের পর ইউনিসেফের বাংলাদেশ প্রতিনিধি এডওয়ার্ড বেগবেদা বলেন, ‘বাংলাদেশে ক্রিকেটের জনপ্রিয়তার কারণে এই অংশীদারিত্বকে ঘিরে অনেক উচ্চাশা রয়েছে। অতীতে বিভিন্ন সময়ে ইউনিসেফ ও বিসিবির মধ্যে বেশ কিছু সহযোগিতামূলক কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তবে এই অংশীদারিত্বের আওতায় আমরা ক্রিকেটের মাধ্যমে অনেক বেশি সুবিধাবঞ্চিত শিশুর কাছে পৌঁছাতে এবং তাদের ক্ষমতায়ন করতে পারব বলে আশা করি।’ বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘ক্রিকেটের যে ব্যপক ইতিবাচক ধারা রয়েছে, ইউনিসেফের সঙ্গে এই অংশীদারিত্ব সেটাকে আরও বেগবান করবে এবং আনুষ্ঠানিকভাবে শিশুদের খেলাধুলার অধিকারকে জোরালোভাবে সমর্থন করার মাধ্যমে বিসিবির বিদ্যমান কাজগুলোকে আরও বেশি মানবিক করে তুলবে।’ চুক্তির শর্ত অনুযায়ী, সব ছেলে-মেয়ের জন্য খেলাধুলার অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে, বিশেষ করে ১৮ বছরের কম বয়সী মেয়েদের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে ইউনিসেফ বিসিবির ক্রিকেট উন্নয়ন কার্যক্রমে সহায়তা দিবে। শিশু অধিজার সম্পর্কিত বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য ২০০৬ সাল থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পাশাপাশি জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছে ইউনিসেফ। সংস্থাটি বিসিবির মাধ্যমে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) বেশ কিছু আয়োজনেও সম্পৃক্ত ছিল, যেসব আয়োজনের মধ্যে আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১১, আইসিসি নারী বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব ২০১১, আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৪-সহ আরও কিছু আয়োজন রয়েছে।-ইন্টারনেট

Share