নিজস্ব ক্রীড়া প্রতিবেদক

জিপিএইচ ইস্পাত প্রিমিয়ার ফুটবলে প্রথম এবং সময়োপযোগী এক জয়ের দেখা পেয়েছে অফিস দল বিসিআইসি ক্রীড়া সংসদ। গতকাল এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলায় তারা ২-১ গোলে ্ব্রাদার্স ইউনিয়নকে হারিয়েছে। এদিকে ব্যর্থতা যেন বন্দর কর্তৃপক্ষ ক্রীড়া সমিতি দলের পিছু লেগেই রয়েছে। কিছুতেই দলটি এর খোলস থেকে বেরিয়ে আসতে পারছেনা। গতকাল তারা এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলে উদয়ন সংঘের সাথে ড্র করে পয়েন্ট হারিয়েছে। কৃতিত্বপূর্ণ এ ড্রয়ের ফলে উদয়ন সংঘ ৬ খেলায় ১১, ব্রাদার্স ইউনিয়ন ৮ এবং বন্দর ক্রীড়া সমিতি ও বিসিআইসি ৫ পয়েন্ট করে লাভ করেছে। গতকালের ২টি খেলায় সেরা খেলোয়াড় বিসিআইসি’র সিমন আহমেদ’কে সিডিএফএ নির্বাহী সদস্য আবু সরোয়ার চৌধুরী এবং উদয়ন সংঘের আরিফ’কে সিডিএফএ নির্বাহী সদস্য আলহাজ লোকমান হাকিম মোহাম্মদ ইব্রাহীম পুরস্কার বিতরণ করেন। খেলায় উদয়ন সংঘের বিরুদ্ধে শুরুটা বেশ ভালই ছিল বন্দর ক্রীড়া সমিতি’র। গোলও পেয়ে যায় খেলার ১২ মিনিটে। সংঘবদ্ধ এক আক্রমণে ডানদিক থেকে বলে প্লেসিং শটে গোল করেন ময়না (১-০)। অবশ্য এ গোলের পরপরই সমতা আনার সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করে উদয়ন সংঘ। এ সময় ফাঁকায় পেয়েও আরিফ গোল করতে ব্যর্থ হন। দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই ম্যাচে ফিরে আসার জন্য মরিয়া হয়ে লড়াই করে উদয়ন সংঘ। যার ফলশ্রুতিতে ২০ মিনিটেই সমতাসূচক গোল তারা পেয়ে যায়। বদলী মিনহাজের কর্নার থেকে আরিফের নিখুত হেড জালে জড়ায় (১-১)। এ গোলে উজ্জ্বীবিত হওয়া উদয়ন সংঘ এগিয়েও যেতে পারতো। কিন্তু বাধা হয়ে দাড়ায় ক্রস বার। ২৫ মিনিটে উদয়ন সংঘের বিদেশি রিক্রট আব্রাহামের দুরপাল্লার দেখার মতো এক শট ক্রসবারে লেগে প্রতিহত হয়। তা না হলে জয় নিয়েই বাড়ি ফিরতে পারতো উদয়ন সংঘ। বলা যায়, নেহাৎ ভাগ্যগুনেই বেঁচে গেছে বন্দর কর্তৃপক্ষ ক্রীড়া সমিতি। এছাড়া দ্বিতীয়ার্ধে তারা তেমন কোন উল্লেখ করার মতো সুযোগও তৈরি করতে পারেনি। দিনের প্রথম খেলায় ৮ মিনিটে সুকা’র গোলে এগিয়ে যায় ব্রাদার্স ইউনিয়ন (১-০)। ২৬ মিনিটে বিসিআইসি সমতা আনে সিমন আহমেদের গোলে (১-১)। প্রথমার্ধে যোগ করা সময়ে বিদেশি আব্বাসের গোলে লিড পায় বিসিআইসি (২-১)। দ্বিতীয়ার্ধে আর কোন গোল না হলে প্রথম জয়কে আগলে ধরে মাঠ ছাড়ে প্রিমিয়ারে নবাগত অফিস দল বিসিআইসি ক্রীড়া সংসদ।

Share