কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কাভার্ড ভ্যান পোড়ানোর ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাই কোর্টের দেওয়া জামিনের বিষয়ে রাষ্ট্রপক্ষকে লিভ টু আপিল করতে বলেছে আপিল বিভাগ।
জামিন স্থগিতের জন্য রাষ্ট্রপক্ষের এক আবেদনের শুনানি করে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে ছয় বিচারকের আপিল বেঞ্চ গতকাল বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেয়।
আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম; সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. বশির উল্লাহ। বিডিনিউজ খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, তার সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।
ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বশির উল্লাহ পরে সাংবাদিকদের বলেন, আপিল বিভাগ ১৩ ডিসেম্বরের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষকে হাই কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন) করতে বলেছে।
আর ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেন, চেম্বার আদালত হাই কোর্টের জামিনের আদেশ স্থগিত না করে আপিলের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়েছিল।
‘গতকাল রাষ্ট্রপক্ষ এ রায়ের বিরুদ্ধে নিয়মিত লিভ টু আপিল করবে বলে এক সপ্তাহের সময় চেয়েছে। আপিল বিভাগ তা মঞ্জুর করেছে।’
২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম উপজেলা সদরের পৌর এলাকার হায়দারপুল এলাকায় একটি কাভার্ড ভ্যানে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে।
ঘটনার পরদিন চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই নুরুজ্জামান হাওলাদার বাদি হয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনসহ ২০ দলের স্থানীয় ৩২ জনের বিরুদ্ধে এ মামলা করেন। মামলায় খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করা হয়।
কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক কে এম সামছুল আলম গত ১৩ সেপ্টেম্বর এ মামলায় খালেদার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করলে তার আইনজীবীরা হাই কোর্টে যান।
তাদের আবেদনের শুনানি করে বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের হাই কোর্ট বেঞ্চ গত ২৮ নভেম্বর খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করে।
এরপর রাষ্ট্রপক্ষ ওই জামিন আদেশ স্থগিতের আবেদন নিয়ে চেম্বার আদালতে গেলে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী গত মঙ্গলবার রায় স্থগিত না করে বিষয়টি শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।
এর ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার আবেদনটি আপিল বিভাগে তোলা হলে সর্বোচ্চ আদালত রাষ্ট্রপক্ষকে নিয়মিত লিভ টু আপিল করতে বলে।

Share