নিজস্ব সংবাদদাতা, রামু

কক্সবাজারের রামুতে সামাজিক বনায়নের উপকার ভোগীদের লভ্যাংশের চেক বিতরণ করা হয়। গতকাল বুধবার দুপুরে রামু উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার দক্ষিণ বিভাগীয় বন কর্মকর্তা হুমায়ন কবির। অনুষ্ঠানে বন বিভাগের রাজারকুল রেঞ্জের আওতাধীন খুনিয়াপালং ইউনিয়নের দারিয়ারদিঘি বিটের ২০০৬-০৭ অর্থ বছরে সৃজিত ২০ হেক্টর সামাজিক বনায়নের ৩০ জন উপকারভোগীর হাতে ৩৩ লাখ ৪৩ হাজার ৮২০ টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়। এরমধ্যে ১০ জন উপকারভোগী ১ লাখ ৬৭ হাজার ১৯০ টাকা এবং ২০ জন উপকারভোগী ৮৩ হাজার ৫৯৫ টাকা করে পেয়েছেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার দক্ষিণ বিভাগীয় বন কর্মকর্তা হুমায়ন কবির বলেন, সামাজিক বনায়নের টাকা পাওয়া, না পাওয়া নিয়ে উপকারভোগীদের মাঝে অনেক সংশয় বিরাজ করে। এখন মোটা অংকের অর্থের চেক পেয়ে উপকারভোগীদের সেই সংশয় কেটে গেলো। পাশাপাশি সামাজিক বনায়নের এ সফলতা অন্যান্য বাগানের উপকার ভোগীদের বাগান রক্ষণাবেক্ষণে উৎসাহিত করবে। রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুৎফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও রাজারকুল রেঞ্জ কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমান টগরের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সহকারী বন সংরক্ষক সোহেল রানা, খুনিয়াপালং ইউপি চেয়ারম্যান সাংবাদিক আবদুল মাবুদ, রাজারকুল ইউপি চেয়ারম্যান মুফিজুর রহমান মুফিজ, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমান, সূর্যের হাসি ক্লিনিকের ব্যবস্থাপক খন্দকার দেলোয়ার হোসেন, ঈদগড় রেঞ্জ কর্মকর্তা এমদাদুল হক, বিট কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন প্রমুখ। উপকার ভোগীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মিজানুর রহমান সিকদার ও নুরুল ইসলাম। পরে অতিথিবৃন্দ উপকার ভোগীদের মাঝে লভ্যাংশের চেক হস্তান্তর করেন।

Share