নীড়পাতা » সম্পাদকীয় » একটি দিন হোক ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস

একটি দিন হোক ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস

ডিজিটাল বাংলাদেশ শব্দযুগলের মানে এমন এক বাংলাদেশ যেখানে কৃষি, ব্যবসা, শিক্ষা, ব্যাংকিং থেকে সরকারব্যবস্থা সবই পরিচালিত হবে ই-সিস্টেমের ভিত্তিতে এবং যা নিয়ন্ত্রিত হবে কম্পিউটার এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে। ডিজিটাল দুটি সংখ্যা ০ এবং ১-এর ওপর ভিত্তি করে তৈরি হওয়া যন্ত্রপাতির ব্যবহারের মাধ্যমে দেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত এবং নাগরিকসেবাকে সহজতর করাই ডিজিটাল বাংলাদেশের অভীষ্ট লক্ষ্য। তথ্যপ্রযুক্তির সহজলভ্যতার কারণে বিশ্বের প্রতিটি দেশ ধীরে ধীরে জ্ঞানভিত্তিক সমাজের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। আর জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গড়ার অন্যতম পূর্বশর্ত হলো তথ্যের অবাধ সরবরাহ। বর্তমান সরকারের গৃহীত ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্পের কারণে তথ্যপ্রযুক্তির এক বিশাল বিপ্লব সম্পন্ন হয়। বাংলাদেশের খুব কম নাগরিকই ডিজিটাল বাংলাদেশ বিষয়টি নিয়ে এর আগে ভেবেছে কিন্তু সরকারের এ ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্পের কারণে দেশের তরুণ থেকে শুরু করে সিনিয়র নাগরিক পর্যন্ত সবার মধ্যে আগ্রহ সৃষ্টি হয়। ২০০৯ থেকে ২০১৫, এ সাত বছরে ই-গভর্নেন্সকে ব্যাপকভাবে সম্প্রসারিত করা সম্ভব হয়েছে। আরো সম্ভব হয়েছে ২০২১ সাল নাগাদ বিপিও খাতে বিলিয়ন ডলার অর্জনের স্বপ্ন দেখার। আর এর সবকিছুই সম্ভব হয়েছে আওয়ামী লীগ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ নামক রূপকল্পের কারণে। মনে রাখতে হবে, ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন শুধু একটি স্লোগানই নয়, এটি এখন গণমানুষের কাছে দীর্ঘ আকাক্সক্ষার এবং প্রত্যাশার একটি বিষয়। যদিও ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে বাংলাদেশকে পাড়ি দিতে হবে যোজন যোজন পথ। কিন্তু প্রতিবছর একটি বিশেষ দিনকে ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস হিসেবে পালন হতে পারে আমাদের এবং সরকারের উভয়ের জন্যই বিশেষ অনুপ্রেরণার।

মো. রহমতউল্লাহ
প্রথম বর্ষ, নিউট্রিশন এন্ড ফুড সায়েন্স অনুষদ
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

Share