নিজস্ব সংবাদদাতা, টেকনাফ

সেন্টমার্টিন দ্বীপবাসীর মৌলিক অধিকার অক্ষুণœ রেখে আন্তঃ মন্ত্রণালয়ের গৃহীত প্রস্তাবনা সংশোধনের দাবিতে ১৯ অক্টোবর মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছে দ্বীপের বাসিন্দাগণ।
স্থানীয় বাজার মাঠ প্রাঙ্গণে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন দ্বীপের চেয়ারম্যান নুর আহমদ, ইউপি সদস্য হাজী আব্দুস সালাম, হাবিবুর রহমান খান, ব্যবসায়ী মাওলানা আব্দুর রহমান, নুরুল আলম, রশিদ আহমদ, সৈয়দ আলম, সাংবাদিক ছিদ্দিকুর রহমান, ইউপি সদস্য ফরিদ আহমদ, নজরুল ইসলাম, নাজির আহমদ, ব্যবসায়ী এমএ রহিম জেহাদী, সাবেক চেয়ারম্যান মাওলানা ফিরোজ আহমদ খান, ব্যবসায়ী আব্দুর রহমান, জিয়াউল হক জিয়া, আলী হায়দার, কবির আহমদ, মোক্তার আহমদ কোম্পানি, হাফেজ আহমদ প্রমুখ। ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে ১ হাজার ৩৫৪ পরিবারের সাড়ে ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ বসবাস করে। ভোটার সংখ্যা ৩ হাজার ৩০৪ জন। আবাসিক হোটেল আছে ৮৪টি।
দ্বীপের বাসিন্দারা এমনিতেই গরীব। উপরন্ত দ্বীপবাসীর ৮০ ভাগেরও বেশি লোকের আয়ের উৎসই হচ্ছে পর্যটককেন্দ্রিক। সেন্টমার্টিন দ্বীপে মানুষ বসবাস করবে, পর্যটক যাতায়াত করবে, কিন্তু হোটেল থাকবে না এবং পর্যটকরা রাতযাপন করতে পারবে না, এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হলে দ্বীপের বাসিন্দাগণ চরম আর্থিক দুর্ভোগের সম্মুখীন হবে। কোনপ্রকার উচ্ছেদ-উৎখাত ও পর্যটক যাতায়াতে বিধি-নিষেধ আরোপ বা রাত্রিযাপন বন্ধের নীতিমালায় না গিয়ে পর্যটক আগমনের
পাশাপাশি একটি সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়নের মাধ্যমে দ্বীপের মূল সমস্যা ও সম্ভাবনাময় বিষয়গুলো চিহ্নিত করে সেন্টমার্টিন দ্বীপ রক্ষার ব্যবস্থা নেয়া জরুরি’।

Share