মফস্বল ডেস্ক

সরকারের ৩ দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা গত ৬ অক্টোবর সমাপ্ত হয়েছে। সমাপনী দিনে আয়োজিত সভায় বক্তারা বলেন, সরকারের গৃহীত উন্নয়ন কার্যক্রম প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে তুলে ধরা, জনগণকে উন্নয়ন কাজের সাথে সম্পৃক্ত করা, ভবিষ্যৎ কর্ম পরিকল্পনা, এমডিজি অর্জনে সরকারের সাফল্য, এসডিজি কার্যক্রমে জনগণকে উদ্বুদ্ধকরণ, বিনিয়োগ পরিকল্পনা ও ব্যক্তিখাতে উদ্যোক্তা সৃষ্টি উন্নয়ন মেলার অন্যতম লক্ষ্য ছিল।
পটিয়া: নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, সমাপনী দিনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রাসেলুল কাদেরের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিল্টন রায়, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এয়ার মোহাম্মদ পেয়ারু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা বেগম জলি, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আবু ইউসুফ মো. ওয়াহিদুল্লাহ, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আবদুল মতিন, সমবায় কর্মকর্তা আবু মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ পিবলূ, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা লুৎফর রহমান, কৃর্ষি কর্মকর্তা আবু জাফর মাঈনুদ্দিন, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আতিয়া চৌধুরী, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম সেবা তৌহিদুল ইসলাম, তথ্য কর্মকর্তা কামরুজ্জমান প্রমুখ। মেলায় সাজসজ্জায় ১ম চট্টগ্রাম পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ (পটিয়া), ২য় কৃষি অফিস, ৩য় মহিলা বিষয়ক অফিস এবং সেবায় ১ম পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ২য় সূর্যের হাসি ক্লিনিক ও ৩য় যুব উন্নয়ন অফিস। পরে নিবার্চিত প্রতিষ্ঠানগুলোর মাঝে ক্রেস্ট ও সনদপত্র বিতরণ করা হয়। তাছাড়া মেলায় অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি স্টলগুলোকে পুরস্কৃত করা হয়।
চকরিয়া: নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত তিনদিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা পুরস্কার বিতরণ, আলোচনা সভা এবং মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শনিবার শেষ হয়েছে। চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমানের সভাপতিত্বে সমাপনী সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র মো.আলমগীর চৌধুরী, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইখতিয়ার উদ্দিন মো.আরাফাত,চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান সাফিয়া বেগম সম্পা, চকরিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আ ক ম গিয়াস উদ্দিন প্রমুখ।
মেলায় সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ের ৭৫টি স্টল অংশ নেয়। সুন্দর উপস্থাপনা ও সাজসজ্জার জন্য সরকারি পর্যায়ে মেলায় অংশ নেয়া স্টলগুলোর মধ্যে প্রথম হয়েছেন ভূমি অফিস, দ্বিতীয় হয়েছে কৃষি অধিদপ্তর এবং যুগ্মভাবে তৃতীয় হয়েছে প্রাণী সম্পদ এবং পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি। এছাড়া বেসরকারি পর্যায়ে প্রথম হয়েছে চকরিয়া পৌরসভা, দ্বিতীয় বনবিভাগ ও ক্রেল এবং তৃতীয় হয়েছে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ। পরে সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন শিল্পী সন্দীপন দাশ ও সমরজিৎ রায়।
চন্দনাইশ: নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে স্থানীয় কাসেম মাহবুব উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আ.ন.ম বদরুদ্দোজার সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার চৌধুরী। প্রধান আলোচক ছিলেন চবি সহযোগী অধ্যাপক ড. সুকান্ত ভট্টাচার্য। আলোচনায় অংশ নেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিজাম উদ্দিন আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জাফর আলী হিরু, উপজেলা প্রকৌশলী দিদারুল আলম, সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা হাছান আল মামুন প্রমুখ।
রাঙ্গুনিয়া: নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত তিনদিন ব্যাপী ৪র্থ উন্নয়ন মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আলী শাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) পূর্বিতা চাকমা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট রেহেনা আখতার, কৃষি কর্মকর্তা কারিমা আকতার, শিক্ষা কর্মকর্তা জহির উদ্দিন, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা, মৎস্য কর্মকর্তা স্বপন চন্দ্র দে, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম, পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম নুরুল হোসেন, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সোনিয়া শফি, প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক জিগারুল ইসলাম জিগার, সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা লায়লা বিলকিস, নিজাম উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার খায়রুল বশর মুন্সি, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম চিশতি প্রমুখ। এবারের মেলায় প্রথম স্থান অধিকার করেছেন পল্লী বিদ্যুৎ বিভাগ, দ্বিতীয় হয়েছেন উপজেলা মৎস্য বিভাগ ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেছেন মহিলা বিষয়ক দপ্তর।

Share