আগামী বিশ্বকাপের সময় লিওনেল মেসির বয়স হবে ৩৫। ওই বয়সেও তারকা এই ফরোয়ার্ড ফুটবলের সর্বোচ্চ শিরোপা জিততে পারে বলে মনে করেন আর্জেন্টিনার সাবেক কোচ হোর্হে সাম্পাওলি। ক্যারিয়ারে আর্জেন্টিনার হয়ে এখন পর্যন্ত চারটি বিশ্বকাপ খেলেছেন মেসি। সবশেষ রাশিয়া বিশ্বকাপে ফ্রান্সের কাছে হেরে শেষ ষোলো থেকে বিদায় নেয় দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। দলের ব্যর্থতায় চাকরি হারাতে হয় কোচ সাম্পাওলিকে। রাশিয়া বিশ্বকাপের পর আর্জেন্টিনার হয়ে আর মাঠে নামেননি মেসি। নিয়মিত অধিনায়ককে ছাড়াই সেপ্টেম্বরে গুয়াতেমালা ও কলম্বিয়ার বিপক্ষে দুটি প্রীতি ম্যাচ খেলে দল। চলতি মাসে হতে যাওয়া ইরাক ও ব্রাজিলের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচের দলেও নেই বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড। নিজের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার নিয়ে এখনও স্পষ্ট করে কিছু জানাননি পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার। কাতারে ২০২২ সালে হবে পরবর্তী বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপ জিততে যা দরকার ৩৫ বছর বয়সেও মেসির মধ্যে তা থাকবে বলে বিশ্বাস সাম্পাওলির। তবে এ জন্য তার আর্জেন্টিনা ফুটবল এসোসিয়েশনের সমর্থন পাওয়ার দরকার বলে মনে করেন এই কোচ। আর্জেন্টিনার কোচের পদ থেকে বরখাস্ত হওয়ার পর প্রথম কোনো গণমাধ্যম দেওয়া সাক্ষাৎকারে মেসির বিশ্বকাপ জয়ের সম্ভাবনা নিয়ে আশা প্রকাশ করেন সাম্পাওলি। স্পেনের ক্রীড়া দৈনিক মার্কাকে আর্জেন্টাইন এই কোচ বলেন, অবশ্যই, সে পারবে। তবে সে জন্য এখন পর্যন্ত যা ঘটেছে সেসব বিবেচনায় নিয়ে একটা প্রক্রিয়া দরকার। প্রক্রিয়াগুলোকে ভাঙা নয়, সেগুলো সংশোধন করতে হয়। পরবর্তী বিশ্বকাপ বা কোপা আমেরিকার জন্য সংগঠিত হওয়া দরকার, অগাধ আস্থার দরকার এবং এই প্রক্রিয়ায় কী দরকার সেটা জানা দরকার। অন্য কথায়, কোপা আমেরিকা না জেতা গেলেও আমাদের উচিত হবে প্রক্রিয়াটা ধরে রাখা এবং এটা না ভাঙা। চাকরি হারানোর আগ পর্যন্ত আর্জেন্টিনা দলে ১৩ মাস দায়িত্ব পালন করেন সাম্পাওলি। মেসির সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা তুলে ধরলেন ৫৮ বছর বয়সী এই কোচ। এটা অবিশ্বাস্য ছিল। বিশেষ করে তাকে খুব প্রতিশ্রুতিবদ্ধ দেখাটা। আমরা যখন জিততে পারছিলাম না তখন তাকে অনেক কষ্ট পেতে দেখি। ইতিহাসের সেরা এই খেলোয়াড় দলের জন্য খুবই নিবেদিতপ্রাণ ছিল। -বিডিনিউজ

Share