মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম

ফটিকছড়িতে কদর বেড়েছে হাতপাখার। হাট বাজারে জমে উঠেছে হাতপাখা বিক্রি। ফলে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে হাতপাখার কারিগর ও বিক্রেতারা। একদিকে গ্রীষ্মের প্রচ- তাপদাহ অন্যদিকে বিদ্যুৎ এর ভয়াবহ লোডশেডিং প্রচ- গরমে মানুষের নাভিঃশ্বাস। তাই বৈদ্যুতিক পাখার বিকল্প হিসেবে হাতপাখার চাহিদা বেড়েছে। হাতপাখা ঘুরিয়ে সৃষ্ট বাতাসে এ গরমে একটু শান্তি পরশ খুঁজছে মানুষ। সরেজমিনে উপজেলার নাজিরহাট,বিবিরহাট,নানুপুর,কাজিরহাট,আজাদীবাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে দেখা যায় হাত পাখার কারিগর নারী-পুরুষ সকলেই ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে। নানা রকমের হাতপাখা তৈরি করছে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এসব পাড়ায় হাতপাখা বিক্রেতারা হাতপাখা ক্রয় করতে আসছে পাইকারী দরে। এদিকে পাড়ায় পাড়ায় হাট বাজারে হাঁক ডেকে হাতপাখা বিক্রি করছে বিক্রেতারা । ভাল বিক্রিও হচ্ছে বলে জানান বিক্রেতারা। আব্দুল হাকিম নামের এক হাতপাখা বিক্রেতা জানানা যতই গরম পড়ে ততই হাতপাখার চাহিদা বাড়ে। ভাল বিক্রি হচ্ছে হাতপাখা। প্রতিদিনই ছয় সাতশত টাকা পর্যন্ত লাভ করতে পারি। বাঁশ বেত তালপাতার তৈরি বিভিন্ন সাইজের বিভিন্ন রকমের হাতপাখা বিভিন্ন দামে বিক্রি হচ্ছে। মান অনুযায়ী ৫০-১০০টাকা,১০০-১৫০টাকা, ১৮০-২০০টাকা র্পযন্ত বিক্রি হচ্ছে হাতপাখা। হাতপাখা ক্রয়কারী মোহাম্মদ ইউনুচ,মোহাম্মদ আকরাম বলেন,প্রচ- গরম পড়ছে তার মাঝে যেভাবে লোড়শেডিং হচ্ছে হাতপাখা ছাড়া আর কোন বিকল্প নেই।