নীড়পাতা » খেলাধুলা » পয়েন্ট হারালো পাইরেটস ও লিটল ব্রাদার্স জয় পেয়ে শক্ত অবস্থানে আগ্রাবাদ কমরেড

বনফুল ফুটবলে হাটহাজারীর বিদায়

পয়েন্ট হারালো পাইরেটস ও লিটল ব্রাদার্স জয় পেয়ে শক্ত অবস্থানে আগ্রাবাদ কমরেড

নিজস্ব ক্রীড়া প্রতিবেদক

বনফুল ২য় বিভাগ ফুটবল লীগে টানা ২য় দফায় ড্র করে পয়েন্ট হারিয়েছে দুই শিরোপা প্রত্যাশী নবাগত পাইরেটস অব চিটাগাং ও লিটল ব্রাদার্স। এর ফলে ২ খেলায় ২ পয়েন্টে দু-দলই লড়াইয়ে কিছুটা পিছিয়ে পড়েছে। গতকাল এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে এ দু-দলের সুপার ফোর পর্বের উপভোগ্য ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। অন্যদিকে একই মাঠে অনুষ্ঠিত দিনের অপর খেলায় হাটহাজারি উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা’কে ১-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা লড়াইয়ে নিজেদের অবস্থান সুদৃঢ় করেছে আগ্রাবাদ কমরেড ক্লাব। ২ খেলায় তাদের পয়েন্ট ৪। এছাড়া গতকালের পরাজয়ে ২ খেলায় ১ পয়েন্টে লড়াই থেকে ছিটকে পড়েছে হাটহাজারি উপজেলা। এদিকে গতকালের প্রথম খেলা শেষে পাইরেটস অব চিটাগাং-এর কোচ সাবেক জাতীয় ফুটবলার আসাদুর রহমান আসাদ প্রথম দফায় ৪র্থ রেফারি এবং দ্বিতীয় দফায় মুল রেফারির দিকে তেড়ে যান। পাশাপাশি কর্মকর্তাদের কাছেও প্রতিবাদ জানান। এভাবে তার মেজাজ হারানোর কারণ, ২-১ গোলে এগিয়ে থাকাবস্থায় একেবারে শেষ দিকে, ৫মিনিটের ইনজুরি পিরিয়ডের শেষ মিনিটে গোল হজম করা। তার বক্তব্য ছিল, রেফারি অতিরিক্ত ৫ মিনিটের চেয়ে বেশি সময় খেলিয়েছেন। পরে দলীয় ম্যানেজার আরিফ আহমেদ তাকে শান্ত করেন। আজ এ লীগের কোন খেলা নাই। কাল শনিবার সুপার ফোর পর্বেও শেষ ২টি খেলা অনুষ্ঠিত হবে। এতে দিনের প্রথম খেলায় পাইরেটস অব চিটাগাং ও হাটহাজারি উপজেলা এবং দ্বিতীয় খেলায় কমরেড ক্লাব ও লিটল ব্রাদার্স মুখোমুখি হবে। এই দুটি খেলার মধ্যে কমরেড ক্লাব জিতে গেলে কোন সমীকরণ ছাড়াই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে। কোন কারণে খেলাটি ড্র এবং অপর খেলায় পাইরেটস অব চিটাগাং জিতে গেলে, সেখানে পাইরেটস অব চিটাগাং ও আগ্রাবাদ কমরেড ক্লাবের পয়েন্ট সমান হয়ে যাবে। তখন প্লে অফ ম্যাচের মাধ্যমে চ্যাম্পিয়ন দল নির্ধারণ করা হবে। গতকালের প্রথম খেলায় পাইরেটস অব চিটাগাং বেশ ভাল খেলেই ম্যাচটা শেষ করতে যাচ্ছিলো। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। ২-১ গোলে এগিয়ে থাকাবস্থায় শেষ বাঁশি বাজার আগ মুহুতেই গোল হজম করলে নিশ্চিত জয় হাতছাড়া হয়ে যায়। এ খেলার ২১ মিনিটে মহিবুল্লার গোলে এগিয়ে যায় পাইরেটস (১-০)। অব্যাহত প্রচেস্টায় ৩০ মিনিটে অধিনায়ক আবু বকর সিদ্দিকের লম্বা থ্রো ইন থেকে জাহিদুল হেডে গোল করে খেলায় সমতা আনেন (১-০)। দ্বিতীয়ার্ধের ৯ মিনিটে আবারো এগিয়ে যায় পাইরেটস। এ সময় বা’দিক থেকে ক্রস হয়ে আসা এক বলে লিটল ব্রাদার্সের কিপার ও ডিফেন্সের ভুল বোঝাবুঝিতে বদলী স্ট্রাইকার খোরশেদ কাল বিলম্ব না করে টোকা মেরে গোল করেন। এতেই পাইরেটস ২-১ গোলে এগিয়ে যায়। সেভাবেই খেলা শেষ হতে পারতো। কিন্তু কপালের লিখনতো আর মোছা যায় না। একেবারে শেষ মিনিটে আবারো লিটল ব্রাদার্সের অধিনায়ক আবু বকর সিদ্দিকের কর্ণার থেকে রিয়াদ হেডে গোল করে পাইরেটস’র পকেটে ঢুকে যাওয়া ম্যাচে ভাগ বসায় (২-২)। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেলেও ভাল খেলতে পারেনি কমরেড ক্লাব। প্রথম ম্যাচের মতো এ খেলাটিও ড্র হতে যাচ্ছিলো। কিন্তু খেলা শেষ হওয়ার ৭ মিনিট আগে গোল করে কোনমতে পার পেয়ে যায় কমরেড ক্লাব। এ সময় বাদিকে সোহেলের ক্রসে নিখুত হেডে গোল করে খেলার ভাগ্য পরিবর্তন করেন কমরেডের বদলী স্ট্রাইকার আরিফ। তবে খেলার প্রথমার্ধে হাটহাজারির মনসুর কিপারকে একা পেয়ে গোল করতে ব্যর্থ না হলে খেলার ফলাফল অন্যরকমও হতে পারতো।

Share