নীড়পাতা » স্থানীয়-২ » বাঁকখালীর রাবার ড্যামের পানিতে ডুবেছে রামুর ৫ শত একর জমি

লোকসানের আশংকায় ৮ গ্রামের কৃষক

বাঁকখালীর রাবার ড্যামের পানিতে ডুবেছে রামুর ৫ শত একর জমি

নিজস্ব সংবাদদাতা রামু

কক্সবাজারের রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের ৮টি গ্রামের প্রায় শত একর জমিতে সদ্য রোপণ করা বোরো ক্ষেত পানিতে ডুবে গেছে। কক্সবাজার সদর উপজেলার বাংলাবাজার বাঁকখালী পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি লি. পরিচালিত রাবার ড্যামের পানি বৃদ্ধি করার কারণে সব বোরো ক্ষেত প্লাবিত হয়েছে। নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন ওই এলাকার হাজারো কৃষক। উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের বারৈয়া পাড়া, উমখালী, কাঠির মাথা, করইল্যামুরা, চাইল্যাতলী, তৈতয়াপাড়া, জনু মাতবরপাড়া, ¦ীনের ঘোনা এলাকায় রবিবার সরেজমিন গিয়ে পানিতে একাকার হওয়া বোরো খেতের দৃশ্য দেখা গেছে। সময় ক্ষুব্ধ কৃষকরা অবিলম্বে রাবার ড্যামের পানি কমিয়ে তাদের সর্বস্ব দিয়ে চাষকৃত বোরো খেত রক্ষার জন্য রাবার ড্যাম পরিচালনা কমিটি এবং প্রশাসনের প্রতি দাবি জানিয়েছেন। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা তখন ফসল রক্ষার জন্য হাহাকার করছিলেন। দক্ষিণ মিঠাছড়ি তৈতয়াপাড়া এলাকার মৃত লাল মিয়ার ছেলে সেচ কাজে নিয়োজিত শফিকুর রহমান জানান, তার সেচ স্কীমের আওতায় ৪০ কানি জমি রয়েছে। এর মধ্যে সদ্য বোরো আবাদকৃত ২৫ কানি (১০ একর) জমির ধান চাষ ১০/১২দিন ধরে পানিতে ডুবে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। উমখালী আবু বক্কর বাপের পাড়ার স্কীম ম্যানেজার আনছারুল হক জানান, তার স্কীমের আওতায় ৩৫ একর জমি রয়েছে। কিন্তু পানিতে প্লাবিত হওয়ার কারনে এখানে মাত্র / একর জমিতে চাষাবাদ করা গেছে। তাও এখন পানিতে ডুবে আছে। সহসা রাবার ড্যামের পানি না কমালে রোপণকৃত বোরো খেত সম্পূর্ণভাবে নষ্ট হয়ে যাবে। চাইল্যাতলী বারৈয়াপাড়ার কৃষক মনির আহমদ জানান, তিনি একর জমিতে বোরো চাষাবাদ করেছেন। এরমধ্যে একর বোরো খেত পানিতে ডুবে গেছে। / দিনের মধ্যে পানি না কমলে এসব খেত ধবংস হয়ে যাবে। এখন তিনি ক্ষেত বিনষ্ট হয়ে আর্থিক লোকসানের আশংকা করছেন