মোহাম্মদ আলী

দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ঐক্যবদ্ধ হতে পারেনি বিএনপি। দলীয় অন্তর্দ্বন্দ্বের কারণে একই এলাকায় কয়েকশ ফুট দূরত্বের মধ্যে কর্মসূচি পালন করেছে উত্তর জেলা বিএনপির বিভক্ত দুই গ্রুপ। গতকাল সোমবার বিভক্ত গ্রুপগুলো শুধুমাত্র কাজীর দেউড়িতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচি পালন করেছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গতকাল কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে নগরীতে মানববন্ধন করে বিএনপি। কাজীর দেউড়িস্থ নাসিমন ভবনের সামনে এই মানববন্ধন করা হয়। মহানগর বিএনপি মানববন্ধনের সময়ে একই এলাকায় কর্মসূচি পালন করেন উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরীর অনুসারীরা। এতে সভাপতিত্ব করেন উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ভিপি নাজিম উদ্দিন। একই সময়ে কাজীর দেউড়ি এলাকায় মানববন্ধন করেন উত্তর জেলা বিএনপির অপর অংশ গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরীর অনুসারী হিসেবে পরিচিত ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেনসহ অন্যরা। দলের চেয়ারপার্সনের মুক্তির দাবিতে একই এলাকায় উত্তর জেলা বিএনপির পৃথক দুইটি কর্মসূচি পালনে কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।
উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরীর অনুসারীদের মধ্যে এই মানববন্ধনে ভিপি নাজিম উদ্দিন ছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি এম এ হালিম, অধ্যাপক ইউনুস চৌধুরী, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক নুরুল আমিন, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবু তাহেরের নুর মোহাম্মদ, আজম খান, জসীম সিকদার, আলহাজ সেকান্দর চৌধুরী, আবদুল আউয়াল চৌধুরী, জসীম উদ্দিন চৌধুরী, সেলিম চেয়ারম্যান, মো. মোস্তফা কামাল, ডা. খুরশিদ জামিল চৌধুরী, মোস্তফা কামাল পাশা বাবুল, সরোয়ার সেলিম, সৈয়দ নাছির উদ্দিন, তোফাজ্জল হোসেন, রিপন তালুকদার, মোবারক হোসেন কাঞ্চন চেয়ারম্যান, ফকির আহমেদ, সাইফুদ্দিন সালাম মিঠু, ইউসফ নিজামী, হাসান জসীম, সোলায়মান মনজু, জহুর আহমেদ, জামশিদুর রহমান, আবদুস শুক্কুর, অধ্যাপক কুতুব উদ্দিন বাহার প্রমুখ।
অপরদিকে গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরীর অনুসারী হিসেবে পরিচিত বিএনপির অপর অংশের মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সাথী উদয় কুসুম বড়–য়া, উত্তর জেলা বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, আলহাজ সরওয়ার আলমগীর, মাঈনুদ্দিন মাহমুদ, ফিরোজ আহমেদ, আবু জাফর চৌধুরী, নিজামুল হক তপন, আজমত আলী বাহাদুর, কামাল মেম্বার, মোহাম্মদ ইসমাইল প্রমুখ।
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ভিপি নাজিম উদ্দিন দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘দলের চেয়ারপার্সনের মুক্তির দাবিতে উত্তর জেলা বিএনপির অভিন্ন কর্মসূচি পালন করা উচিত ছিল। কিন্তু নানা কারণে আমরা পারিনি। তারপরও আমরা ঐক্যবদ্ধ কর্মসূচি পালনে চেষ্টা করছি। কাল (মঙ্গলবার) মহানগরের সাথে যৌথ কর্মসূচি পালন করবো।’
জানতে চাইলে উত্তর জেলা বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘নাসিমন ভবনে দলীয় অফিসের সামনে সড়কে মহানগর বিএনপি মানববন্ধন কর্মসূচির উত্তর পাশে আমরা এবং দক্ষিণ পাশে উত্তর জেলা বিএনপির অপর অংশ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।’
উত্তর জেলা বিএনপির বিভক্ত দুই গ্রুপ এক সাথে কর্মসূচি পালনে সমস্যা কোথায় জানতে চাইলে ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন বলেন, ‘আমাদের মধ্যে আপাতত কোনো সমস্যা নেই। চেষ্টা করছি এক সাথে করতে। কাল (মঙ্গলবার মহানগরের সাথে ঐক্যবদ্ধ অবস্থান কর্মসূচি পালন করবো।’
দলের মধ্যে বিভক্তির প্রসঙ্গে বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম বলেন, ‘উত্তর জেলা বিএনপির বিভক্ত দুই গ্রুপকে এক সাথে করার প্রক্রিয়া চালাচ্ছি। আশা করি আগামী কয়েকদিনের মধ্যে এ নিয়ে একটি সমাধান পাওয়া যাবে।’