নীড়পাতা » মহানগর » হেভিওয়েট কোম্পানি থেকে মুনাফা তুলেছেন বিনিয়োগকারীরা

হেভিওয়েট কোম্পানি থেকে মুনাফা তুলেছেন বিনিয়োগকারীরা

সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। তবে এদিন শুরুতে সূচকে উত্থানের মাত্রা কিছুটা বেশি থাকলেও দুই ঘন্টা পর ব্যাংক খাতের ক্রয় প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। বুধবার সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। পাশাপাশি আগের দিনের তুলনায় টাকার অংকে লেনদেনও কিছুটা কমেছে। দিনশেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫৮৪ কোটি টাকা।-শেয়ারবাজার নিউজ
বিভিন্ন সিকিউরিটিজ হাউজ ও মার্চেন্ট ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বললে তারা জানান, বাজারের হেভিওয়েট কোম্পানি বলতে প্রথমেই রয়েছে ব্যাংক খাতের কোম্পানিগুলো। কারণ বাজার মূলধনের একটি বড় অংশ ব্যাংক সেক্টরের দখলে। ব্যাংক খাতে দরপতনের কারণে পুরো বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। এছাড়া মাসেরশেষে বিনিয়োগকারীদের শেয়ার কেনার চেয়ে বিক্রির প্রবণতা বেশি থাকে। ক্রয়ের চেয়ে বিক্রয়ের পরিমাণ বেশি হওয়ায় বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। আবার কেউ কেউ বাজারে কারেকশনের অপেক্ষায় রয়েছেন বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।
দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ২০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৬২৬৬ পয়েন্টে। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সিএসইএক্স ৫৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১১ হাজার ৭২৫ পয়েন্টে।