পূর্বকোণ ডেস্ক

সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আগামী সপ্তাহেই পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন। সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্রের বরাতে ব্রিটেনের ডেইলি মেইল এই খবর দিয়েছে। পদত্যাগের পর ছেলে ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের হাতে ক্ষমতা তুলে দেবেন তিনি। রাজপরিবারের সাথে ঘনিষ্ঠ এক সূত্রের বরাতে এমনটি জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম ডেইলি মেইল অনলাইন।
সূত্রের বরাতে পত্রিকাটি আরও জানায়, পদত্যাগের পর বাদশাহ সালমানের ভূমিকা হবে অনেকটা ইংল্যান্ডের রাণীর মতো। তিনি শুধুমাত্র ‘পবিত্র স্থানগুলোর তত্ত্বাবধায়ক’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।
সূত্র জানায়, শুধু অলংকারিকভাবে রাষ্ট্রের প্রধান হিসেবে থাকবেন তিনি। সরকারি সকল দায়িত্ব ক্রাউন প্রিন্সের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান (৩২) সাম্প্রতিক সময়ের এক আলোচিত নাম। নভেম্বরের শুরুতে দুর্নীতি দমন অভিযানের নামে তিনি ৪০ জনেরও বেশি প্রিন্স এবং সরকারের মন্ত্রীকে গ্রেপ্তার করান। সৌদি রাজা সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের বয়স এখন ৮১ বছর।
২০১৫ সালের জানুয়ারিতে প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর দায়িত্ব পান মোহাম্মদ বিন সালমান। গত জুনে ক্রাউন প্রিন্স নির্বাচিত হন তিনি। এরপর থেকেই ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতে অনেকটাই ‘ বেপরোয়া’ হয়ে উঠেন ক্রাউন প্রিন্স।
এর আগে, ২০৩০ সালকে লক্ষ্য করে সৌদি আরবের সামাজিক এবং অর্থনৈতিক পরিবর্তনের জন্য ব্যাপক পদক্ষেপ ঘোষণা করেন ক্রাউন প্রিন্স সালমান। তেল নির্ভরতা কাটিয়ে, পদ্ধতিগত দুর্নীতি থেকে মুক্তি এবং ধর্মীয় কট্টরপন্থা থেকে একটি ‘মডারেট’ সমাজে দেশকে উত্তরণের প্রতিজ্ঞা করেন তিনি।
কর্মক্ষেত্রে আরও অধিক হারে নারীদের অংশগ্রহণের বিষয়টিতেও অগ্রাধিকার দেয়ার কথা বলেন তিনি। সম্প্রতি নারীদের গাড়ি চালানো, স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে যাওয়ার মতো কিছু ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ তুলে নেয়া হয়।