নীড়পাতা » শেষের পাতা » বিভিন্ন পৌরসভায় কর্মকর্তা কর্মচারীদের কর্মবিরতি

সরকারি কোষাগার থেকে বেতন ভাতা ও পেনশন…

বিভিন্ন পৌরসভায় কর্মকর্তা কর্মচারীদের কর্মবিরতি

পূর্বকোণ ডেস্ক

সরকারি কোষাগার থেকে কর্মকর্তাকর্মচারীদের বেতন ভাতা পেনশন প্রাপ্তির দাবিতে বিভিন্ন পৌরসভায় পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি পালন করেছে পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারীরা।
খাগড়াছড়ি : আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, সরকারি কোষাগার থেকে কর্মকর্তাকর্মচারীদের বেতন ভাতা পেনশন প্রাপ্তির দাবিতে খাগড়াছড়িতে পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি পালন করেছে খাগড়াছড়ি, মাটিরাঙা রামগড় পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারীরা। গতকাল সোমবার থেকে বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের ব্যানারে স্ব স্ব পৌর কার্যালয়ে কর্মবিরতি শুরু করেন কর্মকর্তাকর্মচারীরা। খাগড়াছড়ি পৌরসভা প্রাঙ্গণে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন খাগড়াছড়ি শাখার সভাপতি জামাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক অংক্য মং মারমা দপ্তর সম্পাদক উজ্জ্বল দে। সরকারি কোষাগার থেকে বেতন ভাতা দাবিতে পটিয়া পৌরসভা পূর্ণদিবস কর্মবিরতি পালন।
বান্দরবান : আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানান,কর্মকর্তা কর্মচারীদের কর্মবিরতির কারণে অচল হয়ে পরেছে বান্দরবান লামা পৌরসভা। সব ধরনের উন্নয়ন কর্মকান্ডও বন্ধ রয়েছে পৌর এলাকায়। রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে পেনশনসহ বেতন ভাতা প্রদানের দাবিতে পৌরসভার সকল শাখার কর্মকর্তা কর্মচারীরা আজ সোমবার পূর্ণদিবস কর্মবিরতি পালন করছে। পৌরসভার সার্ভিস এসোসিয়েশনের বান্দরবান শাখার সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম মজুমদার জানান দেশের পৌরসভাগুলোর কর্মকর্তা কর্মচারীরা বেতন ভাতা চাকরি শেষে পেনশন পাচ্ছেনা। নানা সমস্যায় তারা জর্জরিত। অথচ সরকারের পক্ষ হতে বিষয়ে কোন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে না। পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারীরা বর্তমানে মানবেতর জীবন যাপন করছে। সমস্যার সামাধান না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবো। এদিকে বান্দরবান পৌরসভার ইউজিআইআইপি প্রকল্পের বিভিন্ন চলমান কাজ বন্ধ রয়েছে কর্মবিরতির কারণে। এই প্রকল্পের আওতায় বিভিন্ন এলাকায় সড়ক সংস্কার ড্রেন নির্মাণসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ চলছে।
চকরিয়া : আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, সারাদেশের ন্যায় পৌরসভা কর্মকর্তাকর্মচারী এসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভায় পূর্ণদিবস কর্মবিরতি পালন করা হয়েছে। গতকাল (সোমবার) সকাল ১১টা থেকে অফিসের সব ধরনের কাজ বন্ধ রেখে পৌরসভার সামনে কর্মকর্তাকর্মচারীরা অবস্থান নেন। পৌরসভা কর্মকর্তাকর্মচারী এসোসিয়েশনের সভাপতি বশির আহমদ এতে সভাপতিত্বে করেন। বক্তারা বলেন, রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতনভাতা পেনসন প্রথা চালু করতে হবে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলতে থাকবে বলেও জানান তারা। বক্তব্য রাখেন কামাল হোসেন, আরিফুল ইসলাম চৌধুরী, রাজিব চৌধুরী, শফি প্রমুখ।
লামা : আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, লামা পৌরসভার কর্মকর্তাকর্মচারীরা সোমবার পূর্ণ দিবস কর্ম বিরতি পালন করেছে। সরকারি কোষাগার থেকে পেনশনসহ বেতনভাতা প্রদানের দাবিতে বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত পৌরসভার মুল ফটকে অবস্থান করে কর্মবিরতি পালন করা হয়। কর্মবিরতি চলার ফলে পৌরসভায় সেবা নিতে আসা পৌর নাগরিকগণ ভোগান্তিতে পড়েন।
পটিয়া : পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে সরকারি কোষাগার থেকে বেতন ভাতা পেনশনসহ অন্যান্য সুবিধা প্রদানের দাবিতে পটিয়া পৌরসভা পূর্ণদিবস কর্মবিরতি কর্মসূচি পালন করে। গতকাল সোমবার পটিয়া পৌরসভার সচিব সার্ভিস এসোসিয়েশন পটিয়া শাখার সভাপতি মো. মহসিনের সভাপতিত্বে উক্ত কর্মসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ করে উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, পৌর কাউন্সিলর গোফরান রানা, কাউন্সিলর এম. মান্নান।
রাউজান : আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারীদের বেতন ভাতা পেনশন সুবিধা রাষ্ট্রীয় কোষাগার প্রদানের দাবিতে আন্দোলনের অংশ হিসাবে রাউজান পৌরসভার কর্মকর্তাকর্মচারীর দিনব্যাপী পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি পালন করেছে। গতকাল সোমবার সকাল ৯টা হতে ৫টা পর্যন্ত পৌরসভার নিচতলায় ফ্লোরে বসে কর্মসূচি পালন করেন। সভায় প্রতি সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন পৌরসভার প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খান কাউন্সিলর জানে আলম জনি। সভায় বক্তব্য রাখেন প্রকৌশলী রোমেল বড়ুয়া, প্রকৌশলী তিলকানন্দ চাকমা, মো. মনিরুল ইসলাম, আবদুল্লাহ আল হান্নান, আংগেল বড়ুয়া প্রমুখ।
বাঁশখালী : বাঁশখালী পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের উদ্যোগে দিনব্যাপী কর্মবিরতি পালন করা হয়েছে। রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে পেনশন সুবিধাসহ বেতন ভাতা প্রদানর দাবিতে সারাদেশের ন্যায় বাঁশখালী পৌর কর্মকর্তাকর্মচারীরা কর্মসূচি পালন করে। বাঁশখালী পৌরসভা কার্যালয়ে সকল কর্মকর্তাকর্মচারীদের সমন্বয়ে গতকাল ১৩ নভেম্বর সকাল টা থেকে শুরু হয়ে বিকাল টা পর্যন্ত কর্মবিরতি পালন করে। এদিকে কর্মবিরতি উপলক্ষে পৌরসভা কার্যালয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন, সহকারী প্রকৌশলী লুৎফর রহমান, সার্ভিস এসোসিয়েশন সভাপতি নুরুল ইসলাম বাবুল, সহসভাপতি মো. শহিদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক বাবুল কান্তি বড়য়া অনু, শহিদুল আলম, ফয়সাল, আবু তাহের, আলী হোসেন, ছোটন কান্তি চৌধুরী, আবদুল মন্নান, মো. হোছাইন, রিনা আক্তার, নাছির উদ্দিন, মো. সেলিম, মোকতার উদ্দীন প্রমুখ।
চন্দনাইশ : আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতা জানান,পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ঘোষিত কর্মসূচির আলোকে গতকাল ১৩ নভেম্বর সকালে চন্দনাইশ পৌরসভার সম্মুখে বিকাল ৫টা পর্যন্ত পূর্ণ দিবস কর্ম বিরতি পালন করে পৌরসভার কর্মচারীরা। উপলক্ষে এক আলোচনা সভা এসোসিয়েশনের সহসভাপতি মো. আরিফ মঈনদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ সম্পাদক মো. সেলিম উদ্দীনের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন মো. মনিরুজ্জমান, দিদারুল আলম, রেজাউল করিম, আজম খান, সাখাওয়াত হোসেন প্রমুখ