নীড়পাতা » স্থানীয়-২ » পটিয়ায় হামলায় পুলিশসহ দু’জন আহত, আটক ৪

পটিয়ায় হামলায় পুলিশসহ দু’জন আহত, আটক ৪

নিজস্ব সংবাদদাতা পটিয়া

পটিয়া উপজেলার খরনা ইউনিয়নের কইস্যাপাড়া এলাকায় আদালতের নির্দেশ অমান্য করে বিরোধীয় জায়গায় ঘেরা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়াপাল্টা ধাওয়ার একপর্যায়ে প্রতিপক্ষের ইটপাটকেলে গতকাল ( সোমবার) দুপুরে পুলিশসহ দুইজন আহত হয়েছেন। সময় পুলিশ জনকে আটক করেছে। তারা হলেন, মৃত আনু মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলাম, নুরুল ইসলামের ছেলে মো. রায়হান, মো. আলীর স্ত্রী বুলু আকতার, মো. ইসমাঈলের ছেলে রুম্পা বেগম। এতে ইটের আঘাতে পুলিশ কনস্টেবল শাহ আলম এবং বিরোধীয় জায়গার মামলার বাদি মো. মফিজুর রহমান আহত হয়েছেন। এসময় পুলিশকে কিছু সময় জিম্মি করে রাখে মামলার বিবাদি পক্ষ। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে জিম্মি থাকা পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে এবং জনকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। জানা গেছে, উপজেলার উত্তর খরনা খইশ্যাপাড়া এলাকায় মৃত মনির আহমদের ছেলে মফিজুর রহমানের সাথে পার্শ্ববর্তী মৃত আনু মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলামের সাথে জায়গাজমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। বিরোধীয় জায়গা নিয়ে মফিজুর রহমান সম্প্রতি আদালতে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে মামলা করলে এতে আদালত নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে এবং বিরোধীয় জায়গায় কোন ধরনের স্থাপনা নির্মাণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। গতকাল (সোমবার) বিবাদি নুরূল ইসলামসহ অন্যন্যরা মিলে বিরোধীয় জায়গা ঘেরাওয়ের চেষ্টা করলে বাদি মফিজুর রহমান এতে বাধা প্রদান করেন। এসময় তিনি পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশের সাথে বিবাদিপক্ষের কাটাকাটি হলে একপর্যায়ে পুলিশের উপর চড়াও হয় তারা। পটিয়া থানার এসআই মোস্তফা মামুন জানান, আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কাজ করছে এমন খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশের উপর চড়াও হয় নুরুল ইসলামসহ অন্যান্যরা। এসময় তারা দেশিয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পুলিশকে ঘিরে রাখে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে এবং ঘটনাস্থল থেকে জড়িত জনকে আটক করে নিয়ে আসে