নীড়পাতা » প্রথম পাতা » সেনা থাকবে ভোটে

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন ব্যবহার হবে না

সেনা থাকবে ভোটে

নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকা অফিস

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আগামী নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের দাবি এবং ভোট গ্রহণে ইভিএম যন্ত্র পদ্ধতির ব্যাপারে আপত্তি জানানোর পরদিন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) মাহবুব তালুকদার জানিয়েছেন, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করা হবে। তবে তাদের ইচ্ছে থাকলেও ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন ব্যবহার করা সম্ভব হবে না। আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে গতকাল সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ তথ্য জানান।
মাহবুব তালুকদার বলেন, ‘সেনা মোতায়েন হবে আগামী নির্বাচনে। এখানে একটা কিন্তু আছে। সেনাবাহিনীকে আমরা কিভাবে কাজে লাগাবো, নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় সেনাবাহিনী কিভাবে যুক্ত হবে, সেটি বলার সময় এখনো হয়নি। কমিশনে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কমিশন এ পর্যন্ত বিষয়টিতে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। তবে আমরা কমিশনাররা প্রধান নির্বাচন কমিশনার মহোদয়ের সঙ্গে আলোচনা করেছি এবং আমাদের সবারই অনুভূতি হচ্ছে সেনা মোতায়েন হোক। তবে এটাকে কমিশনের সিদ্ধান্ত বলা যাবে না। সময়ই বলে দেবে যে কিভাবে সেনা মোতায়েন হবে।’ তিনি বলেন, ‘এখন হয়তো আমরা একটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারছিনা। কিন্তু সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে সিদ্ধান্তটা উঠে আসবে। কারণ সময়ই বলে দেবে কী সিদ্ধান্ত নেয়া দরকার। আমি কখনোই বলতে পারবো না যে সেনা মোতায়েন হবে না।’ সংলাপে বিএনপি সেনা মোতায়েন চেয়েছিল। তাহলে কি এটা বলা যায় যে, বিএনপির চাওয়ার অগ্রগতি একধাপ এগিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি এটা মনে করি না। কারণ বিএনপিতো একধাপ অগ্রগতি চায়নি। বিএনপি সেনা মোতায়েন করতে হবে বলেনি। তারা বলেছে ম্যাজিস্ট্রেসি পাওয়ারসহ সেনা মোতায়েন করতে হবে। তবে বিএনপির বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই।’
ইভিএমের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা ইভিএমের লোকজন ডেকেছিলাম। তারা আমাদেরকে সেগুলো দেখিয়েছেন। আর এর আগে যেইসব ইভিএম ব্যবহার করা হয়েছিল। সেগুলো সব বাতিল হয়ে গেছে। তাই সেগুলোকে ইতোমধ্যে আমরা অকার্যকর বলে ঘোষণা করেছি। এই নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করতেই হবে এমন কোনো চিন্তা আমাদের মধ্যে নেই। তবে ভবিষ্যতে নির্বাচন প্রক্রিয়ায় ইভিএমকে যুক্ত করতে হবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘ইভিএম আমাদের এমন একটা অনিবার্য বিষয়, যা ভবিষ্যতে আমাদের ব্যবহার করতে হবে। আমরা হয়তো পারবো না। আমরা পারবো কিভাবে? আমাদেরতো প্রাথমিক প্রস্তুতিই নেই। আমাদেরকে একটি স্বচ্ছ নির্বাচন করতে হবে। সেই নির্বাচন যদি প্রশ্নবিদ্ধ যন্ত্র দিয়ে হয়। যন্ত্রকে যদি মানুষ নিয়ন্ত্রণ করে ব্যবহার করে তাহলে সেটি দিয়ে আমরা প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন করতে পারি না।’ তিনি বলেন, ‘এটা আমার ব্যক্তিগত অভিমত এবার ইভিএম ব্যবহার হবে কিনা এ বিষয়ে আমার সন্দেহ আছে। ইভিএম ব্যবহারের প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য যেই সময় দরকার, যেই অগ্রগতি দরকার, সেই রকম সময় আমাদের হাতে নেই।’