নীড়পাতা » জেলা-উপজেলা-গ্রাম » উন্নয়নকাজ শেষ না হওয়ায় বাড়ছে জনদুর্ভোগ

চন্দনাইশ ফকির পাড়া সড়ক

উন্নয়নকাজ শেষ না হওয়ায় বাড়ছে জনদুর্ভোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, চন্দনাইশ

চন্দনাইশ পৌরসভার জিহস ফকির পাড়া সড়কের উন্নয়ন কাজ ১ বছরেও শেষ না হওয়ায় জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চন্দনাইশ পৌরসভার জিহস ফকির পাড়া সড়কটি নয়াহাট-বাগিচাহাট সড়ক থেকে পুরো জিহস ফকির পাড়ায় ইউ আকৃতির হয়ে আবদুলবারি হাট ব্রিজের সাথে সংযুক্ত হয়। ১ হাজার ৩৫০মি. সড়কের জন্য স্থানীয় প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে ৬০ লক্ষ টাকা বরাদ্ধ দেয়া হয়। গত ৮ জুন’১৭ তারিখে স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ নজরুল ইসলাম চৌধুরী কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। সিডিউল অনুযায়ী একই বছর ডিসেম্বর মাসে কাজ শেষ করার কথা থাকলেও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার ১ বছরে সড়কের বালির কাজ ছাড়া কিছুই করতে পারেনি। তাছাড়া সড়কের বেশ কিছু জায়গায় পার্শ্ববর্তী প্রভাবশালী মহল সড়কের জায়গা দখল করার অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয়রা। এ ব্যপারে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী মোরশেদুল আলম বলেছেন, বরাদ্দকৃত অর্থাভাব এবং বেশ কিছু জটিলতার কারণে বালির কাজ সম্পন্ন করলেও মেকাডাম ও কার্পেটিংয়ের কাজ শুরু করতে পারেননি। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে মেকাডামের কাজ শুরু করে পরবর্তী ১ মাসের মধ্যে কার্পেটিংয়ের কাজ সম্পন্ন করা হবে বলে তিনি জানান। স্থানীয় কাউন্সিলর মো. শাহাদাত হোসেন খোকন বলেছেন, জিহস ফকির পাড়ার প্রায় ১৫ হাজার লোকের একমাত্র চলচলের এ গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ না করায় এলাকাবাসীর দুর্ভোগের শেষ নেই। উপজেলা প্রকৌশলী মো. বিল্লাল হোসেন বলেছেন, দু’দফা বন্যার কারণে সড়কের কাজে ক্ষতি সাধন হয়েছে। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বৃষ্টি কমলে মেকাডামের কাজ শেষ করে কার্পেটিংয়ের কাজ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ করা হবে। পৌর মেয়র মাহাবুবুল আলম খোকা বলেছেন, ঠিকাদারকে এ বিষয়ে অনেকবার তাগিদ দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন অজুহাতে তিনি নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ করেননি। এ ব্যপারে উপজেলা প্রকৌশলীকেও একাধিকবার বলা হয়েছে। তাছাড়া সড়কের বেদখলকৃত জায়গা উদ্ধার করার পর নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ না করায় তা পুনরায় বেদখল হয়ে যাচ্ছে।

Share