নিজস্ব প্রতিবেদক

আমদানি নিষিদ্ধ একটি মোটরসাইকেলসহ মিনহাজ উদ্দিন নামে এক যুবককে গতকাল (মঙ্গলবার) গ্রেপ্তার করেছে পাচলাইশ

থানা পুলিশ। এ ব্যাপারে পাঁচলইশ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রিতেন কুমার সাহা বাদি হয়ে চোরাচালান আইনে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মিনহাজ ছাড়া স¤্রাট ও রাজীব নামে আরো দুই যুবককে মামলায় এজাহারভুক্ত আসামি করা হয়েছে। উক্ত যুবক অবৈধ এ গাড়ি পাচারের

মুলহোতা। আটককৃত বাজাজ কোম্পানির মোটরসাইকেলটির বাজারমূল্য তিনলাখ ৫০ হাজার টাকা। মিনহাজ সাতকানিয়ার গরিবারঝিল গ্রামের নুরুল আলমের ছেলে।
এজাহারে বলা হয়েছে, বিশেষ অভিযান চলাকালে গতকাল (মঙ্গলবার) কাতালগঞ্জ মোড়ে খান ব্রাদার্স সিএনজি পাম্পের সামনে চোকপোস্টে যুবক মিনহাজসহ মোটরসাইকেলটি আটক করা হয়। চালক গাড়িটির কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। পরে দেখা যায়, মোটরসাইকেলটি ২০০ সিসির। যা বাংলাদেশে আমদানি নিষিদ্ধ। গ্রেপ্তারকৃত আসামি মিনহাজ পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানান, স¤্রাট ও রাজীব নামে দুইব্যক্তি এ ধরনের গাড়ি সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে বাংলাদেশে নিয়ে আসে।
খোঁজনিয়ে জানা যায়, স¤্রাটের নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ গ্রুপ শুল্ক ফাঁকি দিয়ে যশোর বেনাপোল আর কুমিল্লা সীমান্ত দিয়ে দ্রুত গতির এসব মোটরসাইকেল বাংলাদেশে নিয়ে আসে। স¤্রাটের সাথে পুলিশের অনেক সদস্যের সুসম্পর্ক রয়েছে। সাধারণ মানুষের কাছে নিজেকে পুলিশ সদস্য পরিচয় দিয়ে থাকে স¤্রাট।