নীড়পাতা » সম্পাদকীয় » বিদেশি অপরাধী চক্র

বিদেশি অপরাধী চক্র

বাংলাদেশে প্রতিবছরই নানা কাজে বিভিন্ন দেশের নাগরিক আসছেন। ফুটবলার, গার্মেন্ট ব্যবসায়ী, ছাত্র ও পর্যটক হিসেবে এসে অনেকে যুক্ত হয়ে যাচ্ছেন অপরাধমূলক কর্মকা-ে। ফেঁদে বসছেন নিত্য নতুন প্রতারণার ফাঁদ! অস্ত্র, সোনা ও মাদক চোরাচালান, জাল মুদ্রার কারবার, এটিএম কার্ড জালিয়াতি, নারী পাচার এমনকি জঙ্গি কর্মকা-ে মদদ দেওয়া। এসব অপরাধ ঠেকানো সময়ের দাবি হয়ে দাঁড়িয়েছে। কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে বিদেশি অপরাধী চক্রের অপতৎপরতা কমিয়ে আনা সম্ভব। বিদেশি নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ ও যথাযথ তদারকির জন্য ‘বিদেশি নাগরিক নিবন্ধন আইন ২০১৫’ বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে। এতে সব বিদেশিই নজরদারিতে চলে আসবে। পাশাপাশি গোয়েন্দা সংস্থা ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সক্রিয় থাকতে হবে। ভিসার মেয়াদ শেষ হলেই তাদের ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। সন্দেহজনক মনে হলে মেয়াদ থাকা সত্ত্বেও কঠোর নজরদারিতে রাখতে হবে। দেশে ঘটিত অপরাধ কর্মকা- দেখে বোঝার বাকি থাকে না, এসব অপরাধী চক্রের কার্যক্রমের অন্যতম মাধ্যম তথ্যপ্রযুক্তি। সুতরাং তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ন্ত্রণ সংস্থাসমূহের সহযোগিতা অধিক ফলপ্রসূ হতে পারে।

আলমগীর ইমন
সরকারি কমার্স কলেজ, চট্টগ্রাম।