নীড়পাতা » সম্পাদকীয় » তথ্যপ্রযুক্তির শিক্ষক

তথ্যপ্রযুক্তির শিক্ষক

বর্তমানে ‘জাতীয় শিক্ষানীতি ২০১০’ অনুযায়ী মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা স্তরে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কিন্তু এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের শিক্ষক নিয়োগ করা হয়নি। এমনকি সরকারি মাধ্যমিক স্কুল ও উচ্চমাধ্যমিক কলেজে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের স্নাতক ডিগ্রিধারী শিক্ষক নেই। বর্তমানে এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, বিশেষ করে বেসরকারি কলেজ পর্যায়ে মানবিক বা বাণিজ্য বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রিধারী শিক্ষক কম্পিউটার বিষয়ে সাধারণ প্রশিক্ষণ নিয়ে শিক্ষার্থীদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের ক্লাস নেন। ফলে শিক্ষার্থীরা এমএস অফিস, ডাটাবেইস, কমিউনিকেশন সিস্টেম, কম্পিউটার নেটওয়ার্ক, কম্পিউটার প্রোগ্রামিং আরও অনেক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক জটিল ও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বুঝতে সমস্যায় পড়ছে। মানবিক বা বাণিজ্য বিষয়ের স্নাতক ডিগ্রিধারীদের পক্ষে এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে পাঠদান সম্ভব নয়। এভাবে চলতে থাকলে সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণের কার্যক্রম বাস্তবায়িত হবে না। তাই বেসরকারি মাধ্যমিক স্কুল বা বিশেষ করে সরকারি স্কুল-কলেজ ও বেসরকারি কলেজে শুধু তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বা কম্পিউটার বিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রিধারীদের নিয়োগ দেওয়া দরকার। তাঁরা ছাত্রদের যেমন পড়াতে পারবেন, তেমনি তাঁদের নানা উদ্ভাবনী কাজে নিয়োজিত করতে পারবেন। তৃণমূলে তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষা ছড়িয়ে দিতে এর বিকল্প নেই।

শাহারিন খাতুন
চাঁপাইনবাবগঞ্জ।